মুর্শিদাবাদে ধৃত জঙ্গিদের টাকা পাঠাত কারা, ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট খতিয়ে দেখতে তদন্তে ইডি

৩৫

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

দ্য ওয়াল ব্যুরো: গত শনিবার মুর্শিদাবাদ থেকে ৬ জন আলকায়দা জঙ্গিকে গ্রেফতার করেছে এনআইএ। তাদের থেকে যে সমস্ত নথিপত্র উদ্ধার হয়েছে তা থেকে এটা স্পষ্ট যে নির্ঘাত বড়সড় কোনও নাশকতার পরিকল্পনা করছিল এই জঙ্গিরা। কিন্তু এই সন্ত্রাসমূলক কাজে টাকার যোগান আসছিল কোথা থেকে তা জানতে এবার তদন্তে নেমেছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টর (ইডি)।

ধৃত জঙ্গিদের থেকে বেশ কিছু ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের ডিটেলস উদ্ধার হয়েছিল। সেইসব ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এইসব অ্যাকাউন্টে কোথা থেকে টাকা এসেছিল, কারা এই আর্থিক লেনদেনের সঙ্গে যুক্ত, কীভাবে জঙ্গিরা টাকা জোগাড় করেছিল সেইসবই খতিয়ে দেখছেন ইডির তদন্তকারী আধিকারিকরা। উল্লেখ্য, ধৃত ৬ জঙ্গির থেকে উদ্ধার করা হয়েছে চাঁদার বিল। এই চাঁদাবাবদ কত টাকা তোলা হয়েছিল, সেই টাকা কী কী কাজে ব্যবহার হয়েছে তার হিসেব মেলানো শুরু করেছেন তদন্তকারীরা। মূলত মুর্শিদাবাদকে কেন্দ্র করে গোটা বাংলায় সন্ত্রাসের জাল বুনতে চাইছিল আল-কায়দা।

উল্লেখ্য এই ৬ জঙ্গিকে গতকাল রাতেই দিল্লি নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে খবর। গোয়েন্দা সূত্রের খবর, ধৃতদের থেকে কথা বের করতে রীতিমতো ঝক্কি পোহাতে হচ্ছে গোয়েন্দাদের। তাই কলকাতার এনআইএ স্পেশাল কোর্টে ধৃতদের ২৪ সেপ্টেম্বর অবধি যে ট্রানজিট রিমান্ড দেওয়া হয়েছে, তাকেই কাজে লাগানোর জন্য দিল্লিতে নিয়ে গিয়ে জেরা করা হবে তাদের। এর মধ্যে দিল্লির পাতিয়ালা কোর্টে ধৃতদের হাজির করার নির্দেশ দিয়েছে আদালত। ২৮ তারিখ ফের কলকাতা নগর দায়রা আদালতে ধৃত জঙ্গিদের পেশ করতে হবে। এই সময়কালের মধ্যে আদালতে রিপোর্ট জমা দিতে হবে এনআইএ-কে। অন্যদিকে কেরল থেকে ধৃত ৩ জঙ্গিকেও গতকালই দিল্লি উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে এনআই সূত্রে খবর, গত শনিবারের অপারেশনে তাদের হাতছাড়া হয়েছে আরও ৪ জঙ্গি। সূত্রের খবর, এদের ব্যাপারে বিস্তারিত তথ্য থাকলেও সঠিক সময়ে সঠিক জায়গায় পৌঁছতে পারেননি এনআইএ আধিকারিকরা। বাকি ৬ জনকে ধরতে গিয়ে অনেকটা সময়ও লেগে গিয়েছিল। সেই সুযোগে পালিয়ে যায় এই ৪ জঙ্গি। অনুমান করা হচ্ছে, সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশেও পালিয়ে যেতে পারে তারা। মুর্শিদাবাদের ডোমকল, রানিনগর এবং জলঙ্গি থেকে গ্রেফতার হয়েছে ৬ জঙ্গি। বাকি ৪ জঙ্গিও আশেপাশেই ছিল বলে অনুমান, সম্ভবত তল্লাশি অভিযানের খবর পেয়ে জলঙ্গির কাছে সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে পালিয়েছে তারা। এমনটাই মনে করছে এনআইএ-র তদন্তকারী আধিকারিকরা।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More