রবিবার, সেপ্টেম্বর ১৫

‘হ্যাঁ মুকুল রায়ের সঙ্গে আমার দেখা হয়েছে, তো?’ অকপট প্রসেনজিৎ

  • 229
  •  
  •  
    229
    Shares

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বাংলার রাজনৈতিক মহলে গত কয়েক দিন ধরেই জল্পনা চলছে। বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের সঙ্গে নাকি দেখা করেছেন অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। সম্প্রতি চিটফান্ড মামলায় প্রসেনজিৎকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। তার পর এই বৈঠকের খবর রটে যাওয়ায় দুয়ে-দুয়ে চার করা রাজনীতির আলোচনায় খুবই স্বাভাবিক। এমনকী গত দু-তিন ধরে নবান্নের বারান্দায় এও গুঞ্জন, কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসবের কমিটি থেকে তাঁকে সরিয়ে দিতে পারে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার।

পরিস্থিতি যখন এমনই তখন একটি ইংরেজি দৈনিকে সাক্ষাৎকার দিয়ে পষ্টাপষ্টি সব জানিয়ে দিলেন টলিউডের ‘বুম্বাদা’। ওই সাক্ষাৎকারে প্রসেনজিৎ জানিয়েছেন, এক মাস আগে তিনি এক বার দিল্লি যাচ্ছিলেন। তখন বিমানের বিজনেস ক্লাসে মুকুল রায় ও তিনি ঘটনাচক্রে পাশাপাশি বসে যান। অনেকেই সেটা দেখেছেন। তার পর থেকেই দুয়ে দুয়ে চার করা শুরু হয়েছে।
তাঁর কথায়, তৃণমূল হোক বা বিজেপি – রাজনীতিতে অনেককেই তাঁকে সম্মান করেন। কিন্তু কারও সঙ্গে দেখা হওয়া বা কথা বলা মানেই কেন ধরে নেওয়া হচ্ছে যে তিনি রাজনীতিতে যোগ দেবেন!

তৃণমূলে এও রটে গিয়েছিল যে দিল্লি বিমানবন্দর থেকে মুকুল রায়ের গাড়িতে চেপেই শহরে ঢুকেছিলেন প্রসেনজিৎ। যদিও সে কথা সত্যি নয় বলেই সাক্ষাৎকারে দাবি করেছেন তিনি।

তবে একই সঙ্গে বাংলা সিনেমার এই এভারগ্রিন অভিনেতা স্পষ্ট বার্তা দিয়েছেন নবান্নের উদ্দেশেও। তিনি বলেছেন, কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের উদযাপন কমিটির চেয়ারম্যান পদ থেকে যদি তাঁকে সরানো হয়, তা হলে তা যেন সম্মানজনক ভাবেই করা হয়। কেউ যেন তাঁকে এসে বলেন যে তাঁকে সরানো হচ্ছে।

সাক্ষাৎকারে প্রসেনজিৎ বলেছেন, তাঁর আগে সাবিত্রী চট্টোপাধ্যায় চলচ্চিত্র উৎসব কমিটির চেয়ারম্যান ছিলেন। তিনি চেয়ারম্যান পদে বসার পর সাবিত্রী দেবী তাঁকে বলেছিলেন, “বাবা তুই হয়েছিস চেয়ারম্যান। এটা এতো ভাল। তবে কেউ আমাকে বলল না”।

টলিউডের ভিতরের পরিস্থিতিও যে ভাল নয় সাক্ষাৎকারে তাও বুঝিয়ে দিয়েছে্ন প্রসেনজিৎ। স্পষ্ট জানিয়েছেন, আর্টিস্ট ফোরামের দায়িত্ব তিনি ছাড়ছেন না। সেই সঙ্গে এও বলেছেন, টলিউডে ইদানীং ঘন ঘন এমন ইস্যু তৈরি হচ্ছে যা উদ্বেগজনক। বিশেষ করে কলাকুশলীরা যে ঠিকমতো তাঁদের পারিশ্রমিক পাচ্ছেন না সেটা অবশ্যই চিন্তার। এ ধরনের পরিস্থিতি আগে ছিল না।

Comments are closed.