সোমবার, আগস্ট ১৯

ডোমকল পুরসভায় সংকটে তৃণমূল, চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা ১৩ কাউন্সিলরের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: রাজ্যের আরও একটি পুরসভায় সংকটের মধ্যে পড়ে গেল শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। মুর্শিদাবাদ জেলার ডোমকল পুরসভার ১৩ জন কাউন্সিলর সোমবার অনাস্থা আনলেন চেয়ারম্যান সৌমিক হোসেনের বিরুদ্ধে।

ভাটপাড়া বা গারুলিয়ায় যেমন তৃণমূল কাউন্সিলররা বিজেপি-তে যোগ দিয়ে বোর্ড পালটে দিয়েছেন, এখানে তেমন নয়। এখানকার তৃণময়ূল কাউন্সিলরদের অভিযোগ, লাগামহীন দূর্নীতিতে ডুবে রয়েছেন পুরপ্রধান। তাই অনাস্থা।

যদিও এ নিয়ে সংবাদ মাধ্যমের সামনে মুখ খুলতে চাননি মান্নান হোসেনের পুত্র সৌমিক। ডোমকল পুরসভার মোট আসন ২১। ২০১৭ সালে তৈরি হয় এই পুরসভা। দু’বছরের পুরসভাতেই এমন হাল দেখে অনেকেই প্রশ্ন তুলছেন তৃণমূল কংগ্রেসের অবস্থা নিয়ে।

এই লোকসভা ভোটে অন্য জেলায় যেমন খারাপ ফল হয়েছে তৃণমূলের, মুর্শিদাবাদে তেমন নয়। বাম ও কংগ্রেসের দখলে থাকা দুটি আসন ছিনিয়ে নিয়েছে তৃণমূল। জেলার রাজনীতিতে সৌমিক হোসেন পরিচিত যুব তৃণমূল সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘনিষ্ঠ নেতা হিসেবেই।

এই ১৩ জন কাউন্সিলরের বক্তব্য, “স্বৈরাচারী পুরবোর্ড চলছে ডোমকলে। চেয়ারম্যান কাউকে না মেনে যা ইচ্ছে তাই করছেন। মানুষকে পরিষেবা দিচ্ছেন না।” তাঁদের একটাই দাবি, চেয়ারম্যান বদল করুক দলের জেলা নেতৃত্ব। যদিও দলের মুর্শিদাবাদ জেলার শীর্ষ নেতা তথা সাংসদ আবুতাহের খান বলেন, “অনাস্থা আনা হয়েছে শুনেছি। আমরা শিগগিরই ওই কাউন্সিলরদের সঙ্গে বৈঠকে বসব।”

পর্যবেক্ষকদের অনেকে মনে করছেন, জেলা নেতৃত্বের একাংশই এই অনাস্থায় ইন্ধন দিয়েছে। না হলে এটা সম্ভব হতো না। তাঁদের মতে, জেলা নেতৃত্ব সরাসরি না সরিয়ে পরোক্ষে চাপ তৈরি করল সৌমিকের উপর।

Comments are closed.