মঙ্গলবার, মার্চ ২৬

তাঁর কথা না শুনলে বদলি করা হবে, সরকারি আধিকারিককে ‘হুমকি’ কোচবিহারের তৃণমূল নেতার

দ্য ওয়াল ব্যুরো: উত্তরবঙ্গে যেন কী লেগেছে!

এখনও আলিপুরদুয়ারের জেলাশাসক (অপসারিত) নিখিল নির্মল এবং তাঁর স্ত্রী নন্দিনী কৃষণ-এর তাণ্ডবের রেশ কাটেনি। ফালাকাটা থানায় ঢুকে পুলিশি হেফাজতে থাকা এক যুবককে পেটানোর ভিডিও ভাইরাল হয়ে গিয়েছিল মুহূর্তে। এ বার পাশের জেলা কোচবিহারে ঘটল সরকারি দফতরে ঢুকে আধিকারিককে হুমকির ঘটনা। সৌজন্যে শাসক দলের এক নেতা।

শনিবার কোচবিহার ১ নম্বর ব্লকের তৃণমূলের কার্যকরী সভাপতি এবং পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি আজিজুল হক গিয়েছিলেন ব্লকের ভূমিসংস্কার কার্যালয়ে। সেখানে গিয়েই আধিকারিক প্রতিমা সুব্বাকে ‘হুমকি’ দিতে শোনা যায় উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ-ঘনিষ্ঠ এই নেতাকে। তাঁকে বলতে শোনা যায় তাঁর কথা না শুনলে হলদিবাড়িতে বদলি করে দেওয়া হবে।

এই ঘটনায় তোলপাড় পড়ে গিয়েছে প্রশাসনিক মহলে। প্রসঙ্গত কয়েক মাস আগে মন্ত্রী রবি ঘোষকে দেখা গিয়েছিল সরকারি এক আধিকারিককে গালিগালাজ করে থাপ্পড় মারার হুমকি দিচ্ছেন। মন্ত্রী ঘনিষ্ঠ নেতার এই কাণ্ড দেখে উত্তরবঙ্গের এক কংগ্রেস নেতা বলেন, “যেমন গুরু, তাঁর তেমন চ্যালা। এ তো একটা ঘটনা সামনে এল। কত ঘটনা রোজ চাপা পড়ে যায় তার ইয়ত্তা নেই।”

যদিও আজিজুল এ সবে কান দিতে রাজি নন। তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, “ভূমিসংস্কার দফতর ঘুঘুর বাসায় পরিণত হয়েছে। টাকা না দিলে কাজ হয় না। স্বচ্ছতার সঙ্গে কাজ না করলে.ওই অফিসারকে উপর তলায় বলে বদলি করা হবে।”

Shares

Comments are closed.