সোমবার, ডিসেম্বর ১৬
TheWall
TheWall

মন্ত্রিসভায় আসছে নতুন তিন মুখ? তাঁরা কারা?

দ্য ওয়াল ব্যুরো: মঙ্গলবার বিকেলে নবান্নে তাঁর সচিবালয়কে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়ে দিয়েছেন, মন্ত্রিসভায় রদবদল হবে বিষ্যুদবার। শুধু দফতর ও দায়িত্বের অদল বদল নয়, এ বার সংগঠন থেকে সরকারে নতুন কয়েক জনকে তিনি আনতে চান মন্ত্রিসভায়।
দিদি-র এই ইঙ্গিতটুকুরই যেন অপেক্ষা ছিল। ওমনি দাবানলের মতো জল্পনা ছড়িয়ে পড়ল তৃণমূল ও সরকারের মধ্যে। নতুন কাদের মন্ত্রিসভায় আনবেন দিদি, কাদেরই বা গুরুত্ব বাড়বে এবং ডানা ছাঁটা যেতে পারে কাদের?
এমনিতে দিদি কখন কাকে কী দায়িত্ব দেবেন তা আগে থেকে আঁচ করা মুশকিল। তৃণমূলের একদম উপরের সারির নেতাদের অনেকের কাছেই তা প্রায় অসাধ্য। যেমন, গত এপ্রিলে রাজ্যসভা ভোটের সময় শান্তনু সেন বা শুভাশিস চক্রবর্তীর নাম দিদি যে প্রস্তাব করবেন, তা কেউ ধারণাও করতে পারেননি।
তবে এতো কিছু সত্ত্বেও তৃণমূলের মধ্যে যা খবর, তাতে মন্ত্রিসভায় নতুন তিনটি মুখ আনতে পারেন দিদি। পঞ্চায়েত ভোটের পর মন্ত্রিসভা থেকে দুই আদিবাসী নেতাকে সরিয়ে দিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পশ্চিম মেদিনীপুরের চূড়ামণি মাহাতো এবং আলিপুরদুয়ারের জেমস কুজুর। তৃণমূলের একটি সূত্রের মতে, তাঁদের পরিবর্তে মন্ত্রিসভায় এ বার দুই নতুন আদিবাসী মুখকে নিয়ে আসতে পারেন দিদি। আলিপুরদুয়ারে তৃণমূলের আরও একজন আদিবাসী বিধায়ক রয়েছেন। তিনি উইলসন চাপরামারি। তা ছাড়াও উত্তরবঙ্গের অন্য জেলায় বাচ্চু হাঁসদা, খগেন মুর্মুর মতো আদিবাসী নেতারাও রয়েছেন। এঁদের মধ্যে কারও কপালে শিঁকে ছিঁড়তে পারে। তবে দলের অন্য একটি সূত্রে খবর, আলিপুরদুয়ার থেকে মন্ত্রিসভায় আসতে পারেন সৌরভ চক্রবর্তী। অনেকের তুলনায় তিনি দৌড়ে এগিয়ে রয়েছেন। তা ছাড়া অন‍্য এক আদিবাসী নেতা সুকুমার হাঁসদাকে ইতিমধ্যে বিধানসভার পরবর্তী ডেপুটি স্পিকার করা হবে বলে এ দিনই জানিয়েছেন তৃণমূলনেত্রী।
অন্যদিকে চূড়ামণি মাহাতোর পরিবর্তে পশ্চিমাঞ্চল তথা জঙ্গলমহলের জেলাগুলির মধ্যে থেকে কোনও আদিবাসী নেতা বা নেত্রীকে মন্ত্রিসভায় আনতে পারেন মুখ্যমন্ত্রী। দলীয় সূত্রে খবর, এ ব্যাপারে এগিয়ে রয়েছেন জ্যোৎস্না মাণ্ডি। জেলা পরিষদের সভাপতি হওয়ার দৌড়ে ছিলেন তিনি। পরিবর্তে তাঁকে মন্ত্রিসভায় আনতে পারেন মমতা।
দুই আদিবাসী নেতা ছাড়াও মন্ত্রিসভায় ঠাঁই হতে পারে বিধাননগরের বিধায়ক সুজিত বসুর। তৃণমূলের অধিকাংশ নেতার ধারণা তাঁকে দমকল দফতরের দায়িত্ব দিতে পারেন মমতা।
তবে এ সবই এখন জল্পনার স্তরে রয়েছে। প্রকৃতপক্ষে নতুন মন্ত্রী হিসাবে কারা শপথ নিচ্ছেন তা বুধবার দুপুরের পরেই স্পষ্ট জানা যাবে। 

Comments are closed.