সোমবার, অক্টোবর ১৪

বিসর্জন দেখতে গিয়ে ভয়াবহ নৌকাডুবি কালিয়াচকে, ডুবে মৃত ৩ শিশু

দ্য ওয়াল ব্যুরো: দশমীতে বিসর্জন দেখতে গিয়ে নৌকাডুবির ঘটনা ঘটল মালদহে। এই নৌকাডুবিতে ৩ শিশুর মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। ডুবুরিরা গিয়ে বেশ কয়েক ঘণ্টার চেষ্টায় উদ্ধার করেছে দেহ।

ঘটনাটি ঘটেছে মালদহ জেলার কালিয়াচক ৩নম্বর ব্লকের বৈষ্ণবনগর থানা এলাকার চকবাহাদুরপুর গ্রামে। গতকাল সন্ধেবেলা গ্রামের কৃষ্ণপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের ভুবন মণ্ডলপাড়ার বাসিন্দারা দলবেঁধে বিসর্জন দেখতে গিয়েছিলেন। তখনই এই দুর্ঘটনা ঘটে।

পুলিশ সূত্রে খবর, গতকাল সন্ধেবেলা চকবাহাদুর গ্রাম-সহ কালিতলা ও ভুবন মণ্ডলপাড়ার বাসিন্দারা দুর্গাপুজোর দশমীর মেলা দেখতে যায়। প্রশাসনের দেওয়া নৌকাতে প্রায় ১৫ জন মতো যাত্রী ওঠে। মাঝ জলাশয়ে গিয়ে নৌকাটি বেসামাল হয়ে যায়। তখনই এই দুর্ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানিয়েছে, বেশিরভাগ যাত্রী সাঁতরে পাড়ে ওঠে। কিন্তু নিখোঁজ হয়ে যায় ৩ শিশু। খবর পেয়ে ব্লক প্রশাসনের আধিকারিক ঘটনাস্থলে যান। মালদহ থেকে ডুবুরি নিয়ে যাওয়া হয়। তাঁরা ও স্থানীয় বাসিন্দারা উদ্ধারকাজ শুরু করে। বেশ কিছুক্ষণ খোঁজার পর উদ্ধার হয় ওই ৩ শিশুর দেহ। তাদের নাম দেবরাজ মণ্ডল ( ৯ ), জুলি মণ্ডল ( ৫ ) ও প্রেমকুমার মণ্ডল ( ১২ )। দেবরাজ ও জুলি ভাই-বোন বলে জানা গিয়েছে।

মালদহ জেলার বন্যা পরিস্থিতি বর্তমানে খারাপ। ১১টি ব্লক প্লাবিত। বন্যা দেখা দিয়েছে কালিয়াচকেও। এলাকার বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত। যোগাযোগের জন্য প্রশাসনের তরফে ব্যবস্থা করা হয়েছে নৌকার। সেই নৌকাতেই সবাই মেলায় যায়। তারপরেই এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নৌকার এক যাত্রী বলেন, ‘‘নৌকায় অতিরিক্ত যাত্রী তোলা হয়েছিল। বর্ষার সময় গঙ্গা অনেকটাই বিস্তীর্ণ। এই অবস্থায় মাঝ নদীতে গিয়ে ওই নৌকাটি টাল খেয়ে উল্টে যায়। নৌকায় ছিল বেশ কয়েকজন শিশু ও মহিলা। বিসর্জন দেখতে যাচ্ছিলাম। মুহূর্তের মধ্যে সব ওলটপালট হয়ে গেল। কোনওরকমে সাঁতরে ঘাটে উঠি।’’

যদিও এই ঘটনার জন্য প্রশাসনকেই দায়ী করছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। তাঁদের অভিযোগ, ভাঙা নৌকা দেওয়াতেই এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। যারা মারা গেছে তাদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ারও দাবি তুলেছেন এলাকার মানুষ।

 

Comments are closed.