সোমবার, ডিসেম্বর ৯
TheWall
TheWall

সল্টলেকে যাত্রী-কন্ডাক্টটর ঝগড়া, থামাতে গিয়ে মার খেল পুলিশ!

দ্য ওয়াল ব্যুরো: শহরের বুকে ফের আক্রান্ত পুলিশ। এ বার সল্টলেক করুণাময়ী বাসস্ট্যান্ডে মারধর করা হয়েছে এক এসআইকে। জানা গিয়েছে, নাক ফেটে গিয়েছে কর্তব্যরত ওই এসআইয়ের। আপাতত বিধাননগর মহকুমা হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে তাঁর।

শুক্রবার সকালে বাসভাড়া নিয়ে ২ যুবকের সঙ্গে ঝগড়া শুরু হয় বাসের কন্ডাক্টরের। ঝামেলা সামাল দিতে কর্তব্যরত ওই পুলিশ আধিকারিক ঘটনাস্থলে যান। এরপরেই তাঁর সঙ্গেও শুরু হয় হাতাহাতি। মারধরের চোটে নাক ফেটে যায় পুলিশকর্মীর। ইতিমধ্যেই অভিযুক্ত ২ যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গত রবিবার মদ্যপ বাইক চালককে আটকানোর অভিযোগে, টালিগঞ্জ থানায় ঢুকে হামলা চালায় উত্তেজিত জনতা। এক কনস্টেবলকে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ ওঠে উন্মত্ত জনতার বিরুদ্ধে। এমনকী মহিলা কনস্টেবলদের পোশাক ছেঁড়ারও অভিযোগ ওঠে তাদের বিরুদ্ধে। পরিস্থিতি সামাল দিতে অভিযুক্তকে ছেড়ে দিতে বাধ্য হয় পুলিশ। পরে অবশ্য এই ঘটনায় বেশ কয়েকজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। বাকিদের খোঁজে চলছে তল্লাশি।

এই ঘটনার পর পরই মালদার রতুয়া থানাতেও আক্রান্ত হয় পুলিশ। স্থানীয়দের অভিযোগরা জানিয়েছিলেন, পথ দুর্ঘটনা নিয়ে থানায় অভিযোগ জানাতে গেলে অভিযোগ নিতে টালবাহানা করে পুলিশ। এর পরেই মহানন্দা টোলার পুলিশ ফাঁড়িতে ভাঙচুর চালায় উত্তেজিত জনতা। পুলিশের তিনটি গাড়িও ভাঙচুর করা হয়। রতুয়া থানার পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করলে বাধা পায়। বরং তাদের উপরেও চড়াও হয় জনতা। তখন বেধড়ক লাঠি চার্জ শুরু করে পুলিশ। পাল্টা ইট পাটকেল ছুঁড়তে থাকে বিক্ষোভকারীরা। শেষে চাঁচোলের এসডিপিও-র নেতৃত্বে র‍্যাফ নামে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে প্রথমে কাঁদানে গ্যাস ও পরে কয়েক রাউন্ড গুলি ছোড়া হয়।

Comments are closed.