শনিবার, অক্টোবর ১৯

সেপ্টেম্বরের শেষেও নাগাড়ে বর্ষণের সম্ভাবনা, বৃষ্টিতে ভেস্তে যেতে পারে পুজোর প্ল্যান

দ্য ওয়াল ব্যুরো: এ বার পুজোয় ভাসতে পারে শহর। সেপ্টেম্বরের শেষ সপ্তাহে ভরা দুর্যোগের আশঙ্কা করছে হাওয়া অফিস। পাশাপাশি এই সপ্তাহেও বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। উত্তর পশ্চিম বঙ্গোপসাগর এবং আশেপাশের অঞ্চলে নিম্নচাপ ক্ষেত্র সৃষ্টি হওয়ার কারণে মৎসজীবীদের আগামী ২ ও ৩ সেপ্টেম্বর সমুদ্রে যেতে নিষেধ করা হচ্ছে ।

এমনিতেই পুজো এ বছর বেশ খানিকটা আগে। একেবারে অক্টোবরের দোরগোড়ায়। তার মধ্যে বর্ষার মরশুমে এ বছর তেমন বৃষ্টি হয়নি দক্ষিণবঙ্গে। স্বাভাবিকের তুলনায় বর্ষা এসেওছিল অনেকটা দেরিতে। নির্ধারিত সময়ের তুলনায় প্রায় দু’সপ্তাহ দেরিতে দক্ষিণবঙ্গে এসেছিল বর্ষা। রেকর্ড ব্রেকিং দেরির কারণে এ বার আষাঢ়-শ্রাবণের খামতি ভাদ্র-আশ্বিনেই পূরণ করতে চলেছে মৌসুমি বায়ু। তেমনটাই আশঙ্কা আবহবিদদের। সেপ্টেম্বরের শেষ দিকে বাড়তে পারে বৃষ্টির পরিমাণ। আশঙ্কা আবহাওয়া দফতরের। ফলে মন্দা হতে পারে পুজোর বাজারেও।

চলতি সপ্তাহেও যে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে সেই পূর্বাভাস আগেই দিয়েছিল আলিপুর আবহাওয়া দফতর। হাওয়া অফিসের তরফে জানানো হয়েছিল, উত্তর বঙ্গোপসাগরে তৈরি হওয়া নিম্নচাপের জেরে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হবে দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলায়। বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির প্রভাব পড়বে উপকূলেও। রবিবার বিকেলেও কলকাতা সহ বিভিন্ন জেলায় বৃষ্টি হয়েছিল। আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস, সোমবার বিকেলের দিকেও দুই চব্বিশ পরগণায় বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

তবে বৃষ্টি হলেও গরম এখনই কমছে না দক্ষিণবঙ্গে। বরং আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তি বজায় থাকবে। ফলে ভাদ্র মাসের গুমোট গরমে নাজেহাল হবে দক্ষিণবঙ্গবাসী। দিনের প্রথমার্ধে পাল্লা দিয়ে বাড়বে তাপমাত্রাও। সোমবার শহরের তাপমাত্রা ছিল সর্বোচ্চ ৩৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এবং সর্বনিম্ন ২৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তবে চড়া রোদের তেজে রিয়েল ফিল ছুঁয়েছে ৪০-এর কোঠা। তবে সকাল থেকে রোদ ঝলমলে দিন থাকলেও, বেলা বাড়তেই আংশিক মেঘলা হয়েছে আকাশ। বিকেলের দিকে ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বলে পূর্বাভাস জারি করেছে আলিপুর।

এ দিকে পরিসংখ্যান অনুযায়ী, সাধারণত, সেপ্টেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহের পর থেকে পশ্চিমবঙ্গে কমতে থাকে বর্ষার প্রকোপ। আর অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহের শেষে পাকাপাকিভাবে পশ্চিমবঙ্গ ছাড়ে মৌসুমি বায়ু। তবে চলতি মরশুমে আবহবিদদের আশঙ্কা সেপ্টেম্বরের দ্বিতীয়ার্ধে নাগাড়ে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে দক্ষিণবঙ্গে। মৌসম ভবনের আগাম পূর্বাভাস সেপ্টেম্বরের শেষ সপ্তাহেও বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। আর এই বৃষ্টিতে পণ্ড হতে পারে পুজোর প্ল্যান।

Comments are closed.