শনিবার, অক্টোবর ১৯

ফের সরকারি হাসপাতাল থেকে উধাও রোগী, বাঙুর-আরজি কর-এর পর এ বার এসএসকেএম

দ্য ওয়াল ব্যুরো: এসএসকেএম থেকে উধাও চিকিৎসাধীন রোগী। পুলিশ জানিয়েছে, নিখোঁজ রোগীর নাম খগেন্দ্রনাথ মাইতি (৬০)। গত ৯ অগস্ট মেন বিল্ডিংয়ের কার্জন বিভাগে ভর্তি হন এগরার বাসিন্দা খগেন্দ্রনাথ। কানে টিউমার হয়েছিল তাঁর। গত ৯ অগস্ট শুক্রবার বিভিন্ন টেস্ট করানোর জন্য তাঁকে ওয়ার্ড থেকে বের করেন হাসপাতালেরই কর্মী। নিয়ে যাওয়া হয় অ্যানেসথেসিয়া বিভাগে। তারপর থেকেই খগেন্দ্রনাথবাবু নিখোঁজ রয়েছেন বলে অভিযোগ পরিবারের।

রোগীর পরিবারের তরফে অভিযোগ, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের অবহেলাতেই এমনটা হয়েছে। চারদিন হয়ে গেলেও মেলেনি খগেন্দ্রনাথ মাইতির খোঁজ। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ভবানীপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করে রোগীর পরিবার। এ দিকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তদন্তে তারা সবরকম ভাবে সাহায্য করছে। তাদের আশা খুব আতড়াতাড়িই খোঁজ পাওয়া যাবে নিখোঁজ রোগীর। হাসপাতালের সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখছে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে কর্মীদেরও।

সরকারি হাসপাতাল থেকে রোগী নিখোঁজের ঘটনা এই প্রথম। এর আগে জুন মাসে এমআর বাঙুর হাসপাতাল থেকে নিখোঁজ হয়েছিলেন বৃদ্ধ হরিহর নস্কর। পরিবারের দাবি ছিল, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এবং পুলিশের কাছে জানিয়েও কোনও সুরাহা হয়নি। ৬ দিন পরে হঠাৎই পুলিশ খবর দেয়, এসএসকেএম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন তিনি।

এই ঘটনার এক মাসের মধ্যেই আরজি কর হাসপাতাল থেকে নিখোঁজ হন আর এক রোগী। শিলিগুড়ির বাসিন্দা, ৭০ বছরের বিমল দত্ত মাথায় আঘাত নিয়ে আরজি কর-এ ভর্তি হন ১০ জুলাই। বাড়ির শৌচালয়ে পড়ে গিয়ে মাথায় মারাত্মক চোট পেয়েছিলেন তিনি। তাঁকে রাখা হয়েছিল হাসপাতালের সিবি অবজার্ভেশন ওয়ার্ডে। সেখান থেকেই গত ২১ জুলাই আচমকাই উধাও হয়ে যান তিনি। এরপর ১১ অগস্ট রিজেন্ট পার্ক থেকে উদ্ধার করা হয় ওই বৃদ্ধকে। পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করে তাঁকে ফিরিয়ে দেওয়া হয় শিলিগুড়িতে।

Comments are closed.