মঙ্গলবার, জানুয়ারি ২১
TheWall
TheWall

রাজীব কুমার নিয়ে কিছু বলবেন? পার্থ বললেন, কমিশনের অফিস বিজেপি-র অফিস হয়ে গিয়েছে

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

দ্য ওয়াল ব্যুরো: শুক্রবার সকালেই কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার মামলার রায় দিয়েছে দেশের শীর্ষ আদালত। তুলে নিয়েছে রক্ষাকবচ। পর্যবেক্ষকদের অনেকেই মনে করছেন, এটা রাজ্য সরকারের একটা বড় ধাক্কা। দুপুরে রাজীব মামলা নিয়ে তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, “আইন আইনের পথে চলবে। সুপ্রিম কোর্ট নিয়ে কিছু বলব না। তবে নির্বাচন কমিশনের অফিস আর বিজেপি-র পার্টি অফিসের মধ্যে কোনও ফারাক নেই। দুটোই এখন এক হয়ে গিয়েছে।”

রাজীব কুমারের বাড়িতে সিবিআই টিম যাওয়া নিয়ে কলকাতায় হুলুস্থূল বেঁধে গিয়েছিল গত ৩ ফেব্রুয়ারি। কেন্দ্রীয় গোয়েন্দাদের রাজীবের সরকারি বাসভবনে ঢুকতে দেয়নি কলকাতা পুলিশ। কলার ধরে তাঁদের তুলে নিয়ে গিয়েছিল শেক্সপিয়র সরণি থানায়। রাজীবের লাউডন স্ট্রিটের বাড়িতে গিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

তারপর কেন্দ্রের বিরুদ্ধে প্রতিহিংসার রাজনীতির অভিযোগ তুলে ধর্ণায় বসেছিলেন। দু’দিন পর যখন সুপ্রিম কোর্ট বলল, রাজীবকে এক্ষুণি গ্রেফতার করা যাবে না, কিন্তু জেরায় ডাকতে পারে সিবিআই, তখন মমতা বলেছিলেন আদালতের এই রায় তাঁর নৈতিক জয়। কিন্তু এ দিন সেই রক্ষাকবচ তুলে নিয়েছে শীর্ষ আদালত। ফলে প্রশ্ন উঠেছে, সেই নৈতিক জয় কি টিকল? বিকেল পর্যন্ত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কোনও টুইট বা ফেসবুক পোস্ট করেননি। কিন্তু পার্থবাবু সেই রাজীব মামলা নিয়ে কার্যত কোনও মন্তব্যই করলেন না।

অনেকে মনে করছেন, যেহেতু দলনেত্রী এখনও তাঁর মতামত জানাননি, সে কারণেই হয়তো পার্থবাবু গোলগোল কথা বলে ব্যাপারটি এড়িয়ে গিয়েছেন। অথবা কৌশলে দলেরই সুচিন্তিত সিদ্ধান্ত, এই নিয়ে কোনও মন্তব্য করা হবে না। রাজীব মামলা সংক্রান্ত প্রশ্নের রেশ ধরেই পার্থ বলেন, “আমরা কত অভিযোগ করছি কমিশনে। কিন্তু একটারও উত্তর দিচ্ছে না।”

বিজেপি-র এক নেতা বলেন, “আসলে সুপ্রিম কোর্টের রায়ে জোর ধাক্কা লেগেছে নবান্নে। পার্থবাবু বোধহয় এখনও সেটা সামলে উঠতে পারেননি।”

Share.

Comments are closed.