রবিবার, জানুয়ারি ১৯
TheWall
TheWall

এক ভোটার দু’বার ভোট দিলেন, ভাববেন না কিন্তু ছাপ্পা ভোট!

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ভোটের লাইনে দাঁড়িয়ে বেশ কিছু পুরুষ-মহিলা। শান্তভাবেই চলছে ভোটগ্রহণ। কিন্তু হঠাৎ করেই লাইনে দাঁড়ানো ভোটারদের আঙুলের দিকে চোখ পড়তেই চোখ কপালে। প্রত্যেকের হাতে লাগানো আছে কালি। তার মানে তো আগেই তাঁরা ভোট দিয়েছেন। ফের লাইনে দাঁড়িয়ে! ছাপ্পা ভোট? নাহ্‌, ছাপ্পা ভোট নয়। বরং ভোট কর্মীদের গাফিলতিতেই দু’বার লাইনে দাঁড়াতে হয়েছে তাঁদের।

ঘটনাটি ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত বীজপুর বিধানসভার ১১৬ নম্বর বুথের। সকালে ভোটগ্রহণ শুরু হওয়ার পর বেশ কিছু ভোটার ভোট দিয়ে বেরিয়ে যাওয়ার পরেও বিভিন্ন সূত্র মারফত তাঁদের ডেকে এনে ভোট দিতে বলা হয়। প্রথমটাই খানিকটা অবাক হয়ে যান ভোটাররাও। লাইনে দাঁড়ানো এক মহিলা ভোটার বলেন, “সকালে এসে ভোট দিয়েছি। আমার বাড়ি বুথের পাশেই। তারপর আবার ফোন করে ডাকলো। ছুটে চলে এলাম।” কিন্তু কেন ফের ডাকা হয়েছে ভোটারদের?

খোলসা করলেন প্রিসাইডিং অফিসার নিজেই। তাঁর বক্তব্য, সকালে ভোট শুরু হওয়ার আগে নিয়ম মতো মকপোল করে ভোট যন্ত্র পরীক্ষা করে নেন তাঁরা। তারপর শুরু হয় ভোটগ্রহণ। কিন্তু ভোট শুরু করার আগে মকপোল মুছতে ভুলে গিয়েছিলেন তাঁরা। যখন ব্যাপারটা তাঁদের নজরে আসে, ততক্ষণে ৮৬টি ভোট পড়ে গিয়েছে।

বাধ্য হয়ে ভোটিং মেশিন ফরম্যাট করতে হয় ভোটকর্মীদের। তারপর ফের বিভিন্ন সূত্র থেকে ডেকে পাঠানো হয় ভোট দিয়ে বেরিয়ে যাওয়া ভোটারদের। কিন্তু সবাই ফিরে আসেননি। যাঁরা এসেছেন, তাঁরা ফের লাইনে দাঁড়িয়েছেন।

এই বিষয় নিয়েও শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা। বিরোধীদের অভিযোগ, এ ভাবে ভোট কর্মীদের সাহায্যে ছাপ্পা ভোট করাচ্ছে শাসকদল। অন্যদিকে তৃণমূলের অভিযোগ, বিজেপি কেন্দ্রীয় বাহিনীর সাহায্যে এই কাজ করছে। যদিও ওই বুথে পুনরায় ভোট গ্রহণের দাবি জানিয়েছে দু’দলই।

আরও পড়ুন

সকাল থেকে যত কাণ্ড সেই ব্যারাকপুরেই

Share.

Comments are closed.