রবিবার, অক্টোবর ২০

নতুন মামলায় জড়িয়ে আটকে গেল বিজেপি’র উত্তর দিনাজপুর জেলা সভাপতির রেহাই

দ্য ওয়াল ব্যুরো : ফের নতুন এক মামলায় জড়িয়ে জেল থেকে ছাড়া পাওয়া আটকে গেল বিজেপি’র উত্তর দিনাজপুর জেলার সভাপতি শঙ্কর চক্রবর্তীর।

২৩ সেপ্টেম্বর উত্তর দিনাজপুরের দাড়িভিটে দুই ছাত্রের মৃত্যুর ঘটনার প্রতিবাদে মুকুল রায়, লকেট চ্যাটার্জী, রূপা গাঙ্গুলি সহ বিজেপি নেতৃত্ব গিয়েছিলেন। অভিযোগ সেখানেই মাইক হাতে বিজেপির উত্তর দিনাজপুরের জেলা সভাপতি শঙ্কর চক্রবর্তী পুলিশের উদ্দেশে প্ররোচনামূলক মন্তব্য করেন। এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতেই ইসলামপুর থেকে ফেরার পথেই শঙ্কর চক্রবর্তীকে গ্রেফতার করে করণদীঘি থানার পুলিশ। তাঁর বিরুদ্ধে প্ররোচনামূলক মন্তব্যের জন্য আইপিসি ৫০৫ (১) ও (২) ধারায় মামলা দায়ের করা হয়।

এই মামলায় বৃহস্পতিবার রায়গঞ্জ সিজেএম আদালতের বিচারক জামিন মঞ্জুর করেন শঙ্কর বাবুর। কিন্তু অন্য একটি মামলায় আটকে গেল শঙ্কর চক্রবর্তীর জেল থেকে ছাড়া পাওয়া। চলতি বছরে ২৮ অগস্ট বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের উপর হামলার প্রতিবাদে সরকারি অনুমতি ছাড়া বিজেপি ২৯ অগস্ট একটি মিছিল করে রায়গঞ্জে। এই মিছিলেই রায়গঞ্জের বিদ্রোহী মোড়ে মুখ্যমন্ত্রীর কুশপুতুল দাহ কর‍তে গেলে পুলিশের সঙ্গে বিজেপি সমর্থকদের ধস্তাধস্তি হয়।

পুলিশ এই ঘটনায় জেলা বিজেপি সভাপতি শঙ্কর চক্রবর্তী সহ কয়েক’শ কর্মীর বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা দায়ের করে। এই মামলাকর সামনে রেখেই রায়গঞ্জ থানার পুলিশ রায়গঞ্জ আদালতে আবেদন করেছিল। জেলা সভাপতি শঙ্কর চক্রবর্তী বালুরঘাট সংশোধনাগারে থাকায় তাঁকে আদালতে পেশ করা সম্ভব হয়নি। রায়গঞ্জ আদালতের বিচারক আগামীকাল তাঁকে রায়গঞ্জ সিজেএম আদালতে পেশ করার নির্দেশ দেন।

শুক্রবার সিজেএম আদালতের বিচারক এই রায় ঘোষনা করায় শঙ্কর চক্রবর্তীর জেল থেকে ছাড়া পাওয়া আটকে গেল। আপাতত এই মামলার কোনও শুনানি না হওয়া পর্যন্ত জেলেই থাকতে হবে তাঁকে।

Comments are closed.