সিবিআই দফতরে মুকুল, নারদ তদন্তে মির্জার মুখোমুখি জেরা হতে পারে বিজেপি নেতার

দ্য ওয়াল ব্যুরো: নারদ তদন্তে বিজেপি নেতা মুকুল রায়কে শুক্রবার ডেকেছিল সিবিআই। কিন্তু কেন্দ্রীয় তদন্ত এজেন্সিকে মুকুলবাবু জানিয়েছিলেন, ওইদিন যেতে পারবেন না। দলীয় কর্মসূচি রয়েছে। শুক্রবার বিকেলেই সিবিআই-কে চিঠি পাঠিয়ে প্রাক্তন রেলমন্ত্রী জানান, মহালয়ার তর্পণ শেষ হলেই তিনি হাজিরা দেবেন। কথামতোই দুপুর সওয়া দুটো নাগাদ নিজাম প্যালেসে পৌঁছলেন মুকুলবাবু।

শুক্রবার একদা তৃণমূলের সেকেন্ড ম্যান বলেন, “আমি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নই, যে সিবিআই দেখলে পালিয়ে যাব। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রথম দিন থেকে বলেছিলেন, সিবিআইয়ের সঙ্গে অসহযোগিতা করো।”

বৃহস্পতিবার নারদ স্টিং অপারেশন কাণ্ডে প্রথম গ্রেফতারিটা সেরে ফেলেছে সিবিআই। অবিভক্ত বর্ধমানের প্রাক্তন পুলিশ সুপার এসএমএইচ মির্জাকে হেফাজতে নিয়েছে কেন্দ্রীয় তদন্ত এজেন্সি। তারপরই মুকুল রায়কে নোটিস পাঠান গোয়েন্দারা।

এ মাসের শুরু থেকেই নারদ ফুটেজে দেখা যাওয়া একাধিক নেতা-মন্ত্রীর ভয়েস স্যাম্পল সংগ্রহ করে সিবিআই। মির্জাও ছিলেন তার মধ্যে অন্যতম। গতমাসে নয়াদিল্লির সিবিআই সদর দফতরে যে দিন ম্যাথু স্যামুয়েল আর কেডি সিং-কে মুখোমুখি বসিয়ে জেরা করেছিলেন গোয়েন্দারা, সে দিন সিবিআই সদরে গিয়েছিলেন মুকুলবাবু। পরে অবশ্য বলেছিলেন, “আমায় ডাকেনি। আমি নিজেই গিয়েছিলাম।” এবং এ-ও জানিয়েছিলেন, নারদ নিয়ে কোনও কথাবার্তাই হয়নি কেন্দ্রীয় এজেন্সির আধিকারিকদের সঙ্গে।

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.