মঙ্গলবার, জানুয়ারি ২১
TheWall
TheWall

#Breaking: মমতার ষড়যন্ত্র চলছে, সিবিআই জেরা শেষে দাবি মুকুলের

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

দ্য ওয়াল ব্যুরো: গতকালই বিজেপি নেতা মুকুল রায় বলেছিলেন, মহালয়ার দিন দুপুরে সিবিআই দফতরে গিয়ে হাজিরা দেবেন তিনি। সেইমতো এ দিন দুপুরে সল্টলেকের সিবিআই দফতরে যান মুকুল। প্রায় তিনঘণ্টার জেরা শেষে সিবিআই দফতর থেকে বেরিয়ে মুকুল দাবি করলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ষড়যন্ত্র চলছে। তবে তদন্তের জন্য যখনই সিবিআই তাঁকে ডাকবে তিনি তাঁদের তদন্তে সহযোগিতা করবেন।

নারদ কাণ্ডে শুক্রবার বিজেপি নেতা মুকুল রায়কে ডেকে পাঠিয়েছিল সিবিআই। কিন্তু প্রাক্তন রেলমন্ত্রী, কেন্দ্রীয় তদন্ত এজেন্সিকে জানিয়েছিলেন, সে দিন তিনি যেতে পারবেন না। দলীয় কর্মসূচি রয়েছে। শনিবার দুপুর দুটো নাগাদ সিবিআই দফতরে গিয়ে হাজিরা দেন তিনি। তারপর প্রায় তিনঘণ্টা ধরে জেরা করা হয় তাঁকে। দফতর থেকে বেরিয়ে মুকুল বলেন, “বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন তদন্ত এজেন্সিকে সহযোগিতা করবে না। আমি বলি করব। আবার ডাকলে আবার আসব। যতবার খুশি ততবার আসব। আমি নারদ কাণ্ডে যুক্ত নই।” তারপরেই বিজেপি নেতা অভিযোগ করেন, “মমতা আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছেন। যারাই গ্রেফতার হচ্ছে তাদেরই বলা হচ্ছে মুকুলের নামে সব দায় চাপাতে।” 

মুকুল রায়ের এই বক্তব্যের পর রাজনৈতিক মহলে গুঞ্জন, রেল প্রতারণা মামলায় বিজেপি নেতা বাবান ঘোষ গ্রেফতারির প্রসঙ্গের দিকেই ইঙ্গিত করেছেন তিনি। রেলের কমিটিতে জায়গা পাইয়ে দেওয়ার নাম করে দফায় দফায় মোট ৪০ লক্ষ টাকা তোলার অভিযোগে আগেই গ্রেফতার হয়েছেন বিজেপির শ্রমিক সংগঠনের সভাপতি বাবান ঘোষ। গত ২১ অগস্ট বেহালার সরশুনা থানার পুলিশ তাঁকে গ্রেফতার করে। ‘প্রতারিত’ ব্যবসায়ী অভিযোগ করেন, মুকুল রায়ের নাম করে এসেই দফায় দফায় টাকা তুলেছেন বাবান।

ওই ব্যবসায়ী পুলিশকে আরও জানিয়েছেন, বাবান এসে তাঁকে আশ্বাস দিয়েছিলেন, এখন বিজেপির সরকার রয়েছে দিল্লিতে। মুকুল রায় ছিলেন রেলমন্ত্রী। তিনিও এখন বিজেপিতে। ফলে রেলের অনেক কিছু এখনও মুকুলবাবু নিয়ন্ত্রণ করেন। বিশ্বাস করেই তিনি বাবানকে টাকা দিয়েছিলেন বলে পুলিশকে জানিয়েছেন তিনি।

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের একাংশের মতে এ দিন সেই প্রসঙ্গই টেনে এনে মুকুল বোঝাতে চাইলেন, তাঁর ভাবমূর্তি খারাপ করার জন্য পুলিশ ও প্রশাসনকে ব্যবহার করে এই ঘটনা ঘটাচ্ছে তৃণমূল। আর তাতে প্রধান মাথা হিসেবে রয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

 

Share.

Comments are closed.