শনিবার, আগস্ট ২৪

মাইক হাতে গান গেয়ে ‘দিদিকে বলো’ জমিয়ে দিলেন রবি ঘোষ

দ্য ওয়াল ব্যুরো, কোচবিহার: বলে দিয়েছেন দিদি। মন্ত্রী, বিধায়ক, সাংসদদের ছুটতে হচ্ছে গ্রামে গ্রামে। ‘দিদিকে বলো’-র প্রচারে তৃণমূল নেতাদের এখন ছুটেবেড়াতে হচ্ছে নিজের এলাকায়। আর তা করতে গিয়েই অন্য মেজাজে ধরা দিলেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। শুধু গ্রামে গিয়ে থাকা-খাওয়া নয়, মাইক হাতে গান গেয়ে মাত করে দিলেন গ্রামবাসীদের।

রবিবাবু কোচবিহারের নাটাবাড়ির বিধায়ক। শনিবার নাটাবাড়ির দেউচড়াই পঞ্চায়েতে ‘দিদিকে বলো’ কর্মসূচিতে গিয়েছিলেন তিনি। মানুষের সঙ্গে কথা বলার পর রাতে খাওয়া-দাওয়া করেন তৃণমূল অঞ্চল সভাপতি ফারুক মণ্ডলের বাড়িতে। কিন্তু সে সবের আগে মঞ্চে উঠে গান গেয়ে মাতিয়ে দিলেন তিনি। মন্ত্রীর এমন খোশ মেজাজ দেখে গ্রামবাসীরাও আপ্লুত।

এমনিতে রবিবাবুর মেজাজ ভীষণ চড়া। কখনও তাঁকে দেখা গিয়েছে ভোটের লাইনে ভোটারকে থাপ্পড় মারতে, কখনও আবার বুথের সামনে সেনাবাহিনীর জওয়ানের সঙ্গে বচসায় জড়াতে। দলের মধ্যেও তাঁর মেজাজ নিয়ে কম আলোচনা নেই। কিন্তু এ হেন রবিবাবুকে গান গাইতে দেখে অনেকেই বিস্মিত।

যে তৃণমূলকর্মীর নেতার বাড়িতে ছিলেন মন্ত্রী, সেই ফারুক মণ্ডল বলেন, “মন্ত্রী এসে আমার মতো একজন সাধারণ কর্মীর বাড়িতে থাকা-খাওয়া করছেন এটা ভাবলেই আনন্দ হচ্ছে। সব কিছুর জন্য দিদিকে ধন্যবাদ।”

যদিও কর্মসূচি ঘোষণার সময়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন, গ্রামের সাধারণ মানুষের বাড়িতে গিয়ে রাত কাটাতে হবে জনপ্রতিনিধিদের। যেমন শনিবার দেখা গিয়েছে মথুরাপুরের তৃণমূল সাংসদ চৌধুরীমোহন জাটুয়া গিয়ে উঠেছেন এক বিজেপি কর্মীর বাড়িতে। কিন্তু রবিবাবু কেন তৃণমূল কর্মীর বাড়িতে এসে উঠলেন, তার জবাব অবশ্য পাওয়া যায়নি।

Comments are closed.