শনিবার, জুলাই ২০

#Breaking: বহিরাগতদের ছোঁড়া পাথরে এ বার আহত এক ডাক্তারি পড়ুয়া

দ্য ওয়াল ব্যুরো: এ বার ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ অ্যান্ড হাসপিটাল। বহিরাগতদের ছোঁড়া পাথরে এ বার আহত এক ডাক্তারি ছাত্র। পাথ বা ইট জাতীয় কিছু ছোঁড়া হয়েছে বলে অনুমান। মাথা ফেটে গিয়েছে ফোর্থ সেমিস্টারের ওই পড়ুয়ার। জানা গিয়েছে, আহত পড়ুয়ার নাম অভিষেক কুমার।

গত সোমবার সন্ধ্যায় রোগী মৃত্যুকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্র হয়ে ওঠে নীল রতন সরকার মেডিক্যাল কলেজ এবং হাসপাতাল চত্বর। সে দিন মৃত্যু হয়েছিল ৮৫ বছরের মহম্মদ সাহিদের। চিকিৎসার গাফিলতিতে মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ আনে পরিবার। এরপর নিমেষেই অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে পরিস্থিতি। ইন্টার্ন এবং জুনিয়র ডাক্তারদের সঙ্গে খণ্ডযুদ্ধ বেঁধে যায় রোগীর আত্মীয়-পরিজনদের। তাঁদের ছোঁড়া ইটের আঘাতে মস্তিষ্কের ফ্রন্টাল লোভ ভাঙে এনআরএস-এর ইন্টার্ন পরিবহ মুখোপাধ্যায়ের। মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে অবশেষে এখন ভালো রয়েছেন ২৬ বছরের এই তরুণ।

কিন্তু পরিবহর উপর আক্রমণের রেশ কাটার আগেই ফের আক্রান্ত এক মেডিক্যাল পড়ুয়া। যখন ডাক্তারদের নিরাপত্তার দাবিতে উত্তাল গোটা বাংলা তখনই পাথর বা ইটের আঘাতে মাথা ফাটল ন্যাশনাল মেডিক্যালের ফোর্থ সেমেস্টারের ছাত্র অভিষেক কুমারের। রাজ্য জুড়ে ডাক্তারদের নিরাপত্তার দাবিতে অবস্থান-বিক্ষোভে সামিল হয়েছেন বিভিন্ন সরকারি মেডিক্যাল কলেজ এবং হাসপাতালের ইন্টার্ন এবং জুনিয়র ডাক্তাররা। পাশে দাঁড়িয়েছেন সিনিয়র ডাক্তাররাও। গণ ইস্তফায় সামিল হয়েছেন তাঁরা।

Comments are closed.