সাহস কী! শুভেন্দুর মুণ্ডু নেবে, আগে নিজেদেরটা বাঁচা: মাওদের মমতা

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

দ্য ওয়াল ব্যুরো: জঙ্গলমহলে শুভেন্দু অধিকারীর মাথা চেয়ে মাওবাদী পোস্টার উদ্ধারের ঘটনায় কড়া প্রতিক্রিয়া দিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শুক্রবার নেতাজি ইনডোরে দলের সাধারণ পরিষদের বর্ধিত বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “বলছে শুভেন্দু অধিকারীর মুণ্ডু চাই। আগে নিজেদের মুণ্ডু বাঁচা।”

মঙ্গলবার পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার গোয়ালতোড় থেকে মাওবাদী কার্যকলাপে যুক্ত সন্দেহে চার জনকে গ্রেফতার করেছিল পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার পুলিশ। তার ৪৮ ঘণ্টার মধ্যেই বৃহস্পতিবার সকালে মেদিনীপুর সদর ব্লকের মুরাকাঠার জঙ্গলে মাওবাদী পোস্টার উদ্ধারকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়। রাজ্যের পরিবহণ ও পরিবেশমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীকে হুমকি দেওয়ার পাশাপাশি সাদা কাগজে লাল আলতায় লেখা টিপিক্যাল সেই মাওবাদী পোস্টারে তৃণমূল সরকারের তীব্র সমালোচনা করার পাশাপাশি হুমকি দেওয়া হয় তৃণমূল বিধায়ক তথা প্রাক্তন মন্ত্রী শ্রীকান্ত মাহাতোকেও।

আরও পড়ুন ছবি আঁকলেও বলবে চোর! অনলাইনে চাঁদা তুলবে অভিষেক: মমতা

প্রসঙ্গত, বাংলার মসনদে পালা বদলের পরই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় চ্যালেঞ্জ নিয়েছিলেন পাহাড় এবং জঙ্গলমহলকে শান্ত করবেন। পর্যবেক্ষকদের অনেকেই বলেন তা করেও দেখিয়েছেন মমতা। এক দিকে প্রশাসন দিয়ে মাওবাদীদের বিরুদ্ধে অভিযান, অস্ত্র ছেড়ে সমাজের মূল স্রোতে ফেরারনোর উদ্যোগ সেই সঙ্গে মানুষের উন্নয়নে নানান প্রকল্প চালু। সমান্তরাল ভাবে এই কর্মসূচি গ্রহণের পর জঙ্গলমহল আপাতত শান্তই। কিন্তু ইদানীং তারা যে আবার হারানো জমি ফিরে পাওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছে বারবার তার প্রমাণ মিলছে। কয়েক মাস আগে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দারাও এ ব্যাপারে রাজ্যকে সতর্ক করেছিল। মাস দুয়েক আগে কেন্দ্রীয় গৃহমন্ত্রী রাজনাথ সিং পূর্বাঞ্চলের রাজ্যগুলিকে নিয়ে বাংলার সচিবালয় নবান্নতে যে বৈঠক করেছিল তাতেও এই করিডরে মাও সমস্যার কথা উঠেছিল।

মমতা এ দিন বলেন, ‘আমাদের গদ্দার গুলোই ওদের (পড়ুন মাওবাদীদের) ডেকে আনছে।” পর্যবেক্ষকদের মতে, গদ্দার বলতে আসলে মুকুল রায়কেই বোঝাতে চেয়েছেন মমতা। কারণ আগে শুভেন্দু অধিকারী পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার পর্যবেক্ষক থাকলেও পড়ে তাঁকে সরিয়ে দেওয়া হয়। অনেকে বলেন, তা হয়েছিল মুকুলবাবুর পরামর্শেই। দলের অনেক নেতা বলেন,  পরে পশ্চিম মেদিনীপুরে তৃণমূলের জেলা সভাপতির ভূমিকা পালন করতেন তৎকালীন পুলিশ সুপার ভারতী ঘোষ। কিন্তু এখন সে সব অতীত। মাঝে পঞ্চায়েতে খারাপ ফলাফলের পর ফের পশ্চিম মেদিনীপুরের পর্যবেক্ষকের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে শুভেন্দু অধিকারীকে। সাংঠনিক কর্মসূচির পাশাপাশি নয়াগ্রাম থেকে বাস চালুর মতো একাধিক প্রশাসনিক কর্মসূচিও নিয়েছেন তিনি। হতে পারে সেই কারণেই শুভেন্দুর বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছে মাওবাদীরা। কিন্তু মাওরা বুনো ওল হলে মমতাও যে বাঘা তেঁতুল তা  বোঝাতে চাইলেন এ দিন।

The Wall-এর ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন 

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More