শুক্রবার, জুন ২১

নাগপুরে গিয়েছিলেন প্রণব, তাই ছেলেকে মদত দিচ্ছে আরএসএস: মমতা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বুধবার চোপড়ার নির্বাচনী সভা থেকে বলেছিলেন, জঙ্গিপুরে প্রণব মুখোপাধ্যায়ের ছেলে লড়ছে আরএসএস-এর মদতে। পয়লা বৈশাখের দিন মুর্শিদাবাদের বেলডাঙার সভায় অবশ্য আরও আক্রমণাত্মক মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এ বার সরাসরি নিয়ে এলেন প্রণব মুখোপাধ্যায়ের নাগপুর প্রসঙ্গ। বললেন, প্রণব মুখোপাধ্যায় নাগপুরে আরএসএসের সদর দফতরে গিয়েছিলেন। আর তাই আরএসএস জঙ্গিপুরে মদত দিচ্ছে প্রণববাবুর ছেলে জঙ্গিপুরের কংগ্রেস প্রার্থী অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়কে।

মুর্শিদাবাদের বহরমপুর লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত বেলডাঙায় সোমবার নির্বাচনী প্রচারে গিয়েছিলেন মমতা। অন্যান্য সভার মতো এ দিনের সভাতেও তাঁর আক্রমণের কেন্দ্রে ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ। সংখ্যালঘু ভোটারদের সামনে বিজেপির মেরুকরণের রাজনীতির প্রসঙ্গ তুলে আনেন মুখ্যমন্ত্রী। তবে এ দিন শুধু বিজেপি নয়, তার সঙ্গে প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়ের প্রসঙ্গও তুলে আনেন মমতা। গত বুধবার চোপড়ার সভায় দাঁড়িয়ে তিনি অভিযোগ করেছিলেন, “বহরমপুরে কংগ্রেসের নেতা আরএসএসের মদতে লড়ছে। জঙ্গিপুরে প্রণব মুখার্জির ছেলেও লড়ছে আরএসএসের মদতে।” আর এ দিন সরাসরি প্রণব মুখোপাধ্যায়কে আক্রমণ করে মমতা বলেন, “বাংলায় দুটো জায়গায় আরএসএস বিজেপি কংগ্রেসের হয়ে কাজ করছে। কোথায় কোথায়? জঙ্গিপুরে। প্রণব মুখোপাধ্যায় গিয়েছিল আরএসএসের অফিসে। আর বহরমপুরে অধীর চৌধুরীর হয়ে কাজ করছে আরএসএস। এটা জেনে রাখুন। এটা সত্যি কথা। এটা সত্যি কথা। এটা সত্যি কথা।”

প্রণববাবুর সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বেশ অম্লমধুর। কখনও ভাব, কখনও আবার প্রকাশ্যেই ঝগড়া হয়েছে দুজনের। প্রণববাবু যখন রাষ্ট্রপতি প্রার্থী হলেন, তখন বেঁকে বসেছিলেন মমতা। শেষমেশ বাধ্য হয়ে সমর্থন করেছিলেন। তবে গত বুধবার ও সোমবারের সভা থেকে সরাসরি আরএসএসের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতার ব্যাপারে প্রণব মুখোপাধ্যায়ের নাম জড়িয়ে মমতা বুঝিয়ে দিলেন, প্রণববাবুর সঙ্গে ব্যক্তি সম্পর্ক এখন আর কোনওভাবেই প্রাসঙ্গিক নয়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এ বার স্লোগান তুলেছেন রাজ্যের ৪২ টি আসনের ৪২ টিই তাঁর চাই। সুতরাং জঙ্গিপুরও চাই। বস্তুত তা বুঝিয়ে দিতেই দু’দিনের সভা থেকে প্রণববাবুর প্রসঙ্গে টেনে এনে দিদি বেজায় অস্বস্তিতে ফেলে দিলেন অভিজিৎকে।

গত বছর নাগপুরে আরএসএসের সমাবর্তন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়। তিনি অবশ্য আরএসএসের দর্শনের প্রতি তাঁর আস্থা জানাননি। বরং ভারতের বহুত্ববাদের কথাই বলেছিলেন। কিন্তু তাতে কী! রাজনীতিতে ধারনাটাই শেষ কথা। এবং তা এই যে, প্রণববাবু আরএসএসের ঘনিষ্ঠ। বলতে গেলে তখন থেকেই প্রণববাবুর ছেলে অভিজিৎ ও মেয়ে শর্মিষ্ঠা বাবার এই সিদ্ধান্ত থেকে দূরত্ব বজায় রেখেছিলেন। কারণ, তাঁরা আঁচ করছিলেন, এর ফলে রাজনৈতিক ভাবে হাত পুড়তে পারে তাঁদের। এখন ভোটের সময় সেই ভূতই মাথা তুলল। এবং প্রসঙ্গটি খুঁচিয়ে দিলেন খোদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মুর্শিদাবাদের জঙ্গিপুরে প্রায় সত্তর শতাংশ সংখ্যালঘু ভোট। মমতার কথা থেকেই পরিষ্কার যে উনি চাইছেন, সংখ্যালঘু ভোটের মেরুকরণ যেন হয় তৃণমূলের অনুকূলে। তারা যেন কেউ সিপিএম বা কংগ্রেসকে ভোট না দেয়। জঙ্গিপুরে এ বার তৃণমূল এবং বিজেপি দু’জনেই সংখ্যালঘু প্রার্থী দিয়েছে। একমাত্র হিন্দু প্রার্থী হলেন অভিজিৎ। তৃণমূল নেতৃত্ব জানাচ্ছেন, জঙ্গিপুর লোকসভার সাতটি বিধানসভায় সাতটি জনসভা করবেন দলের অন্যতম শীর্ষ সারির নেতা তথা জেলার পর্যবেক্ষক শুভেন্দু অধিকারী। তা ছাড়া মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও জঙ্গিপুর লোকসভায় দুটি সভা করবেন। অর্থাৎ জঙ্গিপুরে প্রণব-পুত্রকে ওয়াকওভার দেওয়ার কোনও প্রশ্নই নেই। সেটাই এ দিনের সভা থেকে বুঝিয়ে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী।

আরও পড়ুন

তোমার বিরুদ্ধে কত কেস আছে খুলব? অধীরকে খোলা হুমকি মমতার

Comments are closed.