বুধবার, নভেম্বর ২০
TheWall
TheWall

#BREAKING: রাজ্যপাল বিজেপির লোক, সরাসরি তোপ দিদির

দ্য ওয়াল ব্যুরো: এত দিন দলের অন্যান্য নেতারা বলছিলেন। যেমন মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। হোয়াটস অ্যাপ ও ব্যক্তিগত গোপনীয়তা নিয়ে রাজ্যপালের মন্তব্যের প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে পার্থবাবু বলেছিলেন, “উনি রাজনৈতিক দলের মুখপাত্রের মতো কথা বলছেন!” বৃহস্পতিবার রাজ্যপালের সমালোচনায় সরাসরি তাঁকে বিজেপির লোক বলে দিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন তৃণমূল ভবনে তাঁকে রাজ্যপাল নিয়ে প্রশ্ন করা হলে বলেন, “বিজেপির পার্টি ম্যানকে নিয়ে আমাকে কোন প্রশ্ন করবেন না। আমি কোনও উত্তর দেব না। উনি বিজেপির লোক।”

রাজ্যপালের দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে গত তিন মাসে একাধিক ইস্যুতে সঙ্ঘাত হয়েছে রাজ্যের সাংবিধানিক প্রধান ও নবান্নের। সর্বশেষ স্বাস্থ্য ইস্যুতে রাজ্য সরকারের কড়া সমালোচনা করেছেন রাজ্যপাল। বাংলায় আয়ুষ্মান ভারত হবে না বলে লোকসভা ভোটের তিন মাস আগেই জানিয়ে দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যাপাধ্যায়। বদলে রাজ্যের নিজস্ব প্রকল্প স্বাস্থ্যসাথীর কথা ঘোষণা করেছিলেন তিনি। কিন্তু বুধবার রাজ্যপাল বললেন, “এখানে সব কিছু নিয়েই রাজনীতি হয়। সব কিছুকে ছাপিয়ে গিয়েছে রাজনীতিকরণ। স্বাস্থ্যকে তা থেকে বাদ রাখাই শ্রেয়।”

ধনকড় আরও বলেন, “সারা দুনিয়াতে আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প স্বীকৃতি পেয়েছে। কিন্তু বাংলার মানুষ তার সুবিধে পাচ্ছে না। এটা যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোতে বাঞ্ছনীয় নয়।” তাঁর কথায়, “কোন প্রকল্পের টাকা কোথা থেকে আসছে সেটা আমার দেখার বিষয় নয়। কিন্তু আমার ভীষণ ভাবে মনে হয়, মানুষের জন্য যে টাকাই আসুক, তার যথাযোগ্য ব্যবহার হওয়া উচিত। এটাই সুষ্ঠু যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোর লক্ষণ।”

অর্জুন সিং-এর মাথা ফেটে যাওয়া, যাদবপুর বিশ্বাবিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে কেন্দ্রীয় পরিবেশ প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় ঘেরাও থেকে দুর্গাপুজোর কার্নিভাল –একাধিক কাণ্ডে সমালোচনা করেছিলেন রাজ্যপাল। কিন্তু কালীপুজোর সন্ধেবেলা দিদির বাড়ির উঠোনে যেন অন্য ফ্রেম তৈরি হয়ে গিয়েছিল। সস্ত্রীক ধনকড় চলে গিয়েছিলেন মমতার বাড়ির কালীপুজোয়। তারপর অনেকেই বলেছিলেন, এবার হয়তো বরফ গলবে। আবার শাসক দলের অনেকে এও বলেছিলেন, এসব একেবারেই উপর উপর। ভিতর ভিতর কিছুই মেটেনি। দেখা গেল দ্বিতীয় আশঙ্কাটাই সত্যি হল।

মুখ্যমন্ত্রীর এদিনের এই মন্তব্য নিয়ে বিজেপি রাজ্যসভাপতি তথা মেদিনীপুরের সাংসদ দিলীপ ঘোষ বলেন, “এতদিন আমরা বলছিলাম আর দিদিমণি রেগে যাচ্ছিলেন। এখন রাজ্যপাল ধরে ধরে ভুল দেখিয়ে দিচ্ছেন, উনি তাঁকেও বিজেপির লোক বলে দিলেন!”

Comments are closed.