সোমবার, নভেম্বর ১৮

কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের হেরিটেজ বিল্ডিংয়ে চওড়া ফাটল, হাসপাতাল চত্বরে আতঙ্ক

দ্য ওয়াল ব্যুরো: কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের হেরিটেজ বিল্ডিংয়ে বড়সড় ফাটল। আতঙ্কে রোগীরা।

অনেকদিন ধরেই ফাটল দেখা গিয়েছিল এশিয়া মহাদেশের প্রথম মেডিক্যাল কলেজের গর্বের MCH বিল্ডিংয়ে। গোটা বিল্ডিং বসে যাচ্ছে কি না সেই প্রশ্নও তুলেছিলেন অনেকেই। জানা গিয়েছে, মূল ফাটল প্রায় ৩০ ফুট লম্বা। কোথাও কোথাও ফাটল হাফ ইঞ্চি, ১ বা ২ ইঞ্চি পর্যন্ত চওড়া। প্রতিদিন বাড়ছে ফাটলের পরিমাণ।

প্রায় ৩০০ রোগী ভর্তি থাকেন এই MCH বিল্ডিংয়ে। রয়েছে ICCU, HDU, HEMATOLOGY, CARDIOLOGY, MEDICINE, PEDIATRIC HIV CENTRE —- সব মিলিয়ে একাধিক বিভাগ রয়েছে এই বিল্ডিংয়ে। ইতিমধ্যেই বিল্ডিং নিরাপদ কিনা তা জানতে চেয়ে পিডব্লিউডি-কে চিঠি দিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। সূত্রের খবর, পিডব্লিউডি-র তরফে জানানো হয়েছে তেমন চিন্তার কোনও কারণ নেই। সিমেন্ট দিয়ে সাময়িক ভাবে মেরামত করা হয়েছে ফাটল। তবে রোগীদের নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তিত হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। সুপার ইন্দ্রনীল বিশ্বাস জানিয়েছেন, “রোগীদের নিরাপত্তাই প্রধান বিষয়। পিডব্লিউডিকে চিঠি দিয়ে বিল্ডিংয়ের অবস্থা জানতে চেয়েছে।

মাস চারেক আগে এই MCH বিল্ডিংয়ের পাশেই মাত্র ফুট পাঁচের দূরত্বে নতুন একটি বিল্ডিং তৈরির কাজ শুরু করেছিল পিডব্লিউডি। মাটিরে অনেক নীচে পর্যন্ত গর্ত খোঁড়া হয়। সাধারণত এসব কাজ হলে পাশের বিল্ডিংয়ের বাইরে লোহার বার পুঁতে খাঁচা তৈরি করে গার্ড দেওয়া হয়। প্রাথমিক ভাবে সেসব কিছুই করেনি পিডব্লিউডি। সেই সময়েই ফাটল দেখা যায় MCH বিল্ডিংয়ে। আতঙ্ক ছড়ানোয় কাজ বন্ধ রেখে লোহার বিম পুঁতে দেয় পিডব্লিউডি। ফের শুরু হয় কাজ। নতুন করে ফাটলের পরিধি বাড়তে থাকায় পিডব্লিউডিকেই কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছে আমজনতার একাংশ। তাঁদের অভিযোগ, পিডব্লিউডি কর্তৃপক্ষের গাফিলতির জন্যই এই ফাটল দেখা দিয়েছে।

পড়ুন দ্য ওয়াল-এর পুজোসংখ্যার বিশেষ লেখা…

আগে তো আমাদের বাঙালি হতে হবে, তারপরই না ফিউশন: সনজীদা খাতুন

Comments are closed.