শনিবার, জুলাই ২০

২৪ ঘণ্টা না কাটতেই উদ্যোগী লালবাজার, ডাক্তারদের নিরাপত্তায় নোডাল

দ্য ওয়াল ব্যুরো: নবান্নের বহু প্রতীক্ষিত বৈঠকের পরেই ডাক্তারদের নিরাপত্তায় নিযুক্ত হলেন নোডাল অফিসার। বাড়ানো হলো সিসিটিভি-র সংখ্যা।

সোমবার নবান্নে জুনিয়র ডাক্তারদের প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠক করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আশ্বাস দিয়েছিলেন ডাক্তারদের নিরাপত্তার ব্যাপারে ব্যবস্থা নেবেন।

সেই বৈঠকের ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই লালবাজারে মিটিং করে সিদ্ধান্ত হয়েছে যে প্রাথমিক ভাবে ডাক্তারদের নিরাপত্তায় কী কী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ দিনের বৈঠকে হাজির ছিলেন পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা, হাসপাতালগুলির লোকাল থানার ওসি-রা, ডিসি-রা এবং বহু উচ্চপদস্থ পুলিশ আধিকারিকরা।

এক নজরে বৈঠকের সিদ্ধান্ত-

১। হাসপাতালের চিকিৎসকদের নিরাপত্তার দায়িত্বে একজন নোডাল অফিসারকে নিযুক্ত করেছে কলকাতা পুলিশ। ডিসি কমব্যাট ফোর্স নবিন্দর সিংকে দেওয়া হয়েছে এই দায়িত্ব।

২। বাড়ানো হবে হাসপাতালের সিসিটিভি-র সংখ্যা। স্থানীয় ডিসি অফিসের সঙ্গে সরাসরি লিঙ্ক করা থাকবে এই সিসিটিভিগুলির। সেখান থেকেই চালানো হবে নজরদারি।

৩। দ্রুত চালু করা হবে হেল্প লাইন নম্বর। এ জন্য সরকারি ভাবে জানানো হয়েছে বিএসএনএল-কে।

৪। স্থানীয় থানার সঙ্গে সবসময় যোগাযোগ রাখতে হবে হাসপাতালে থাকা পুলিশ টিমকে।

৫। গণ্ডগোলের আঁচ পেলেই সঙ্গে স্থানীয় থানা ও লালবাজারকে ইনফর্ম করতে হবে।

৬। ইমার্জেন্সিতে ডাক্তার দেখানোর সময় রোগীর সঙ্গে ২ জনের বেশি রোগীর পরিবারের কেউ ঢুকতে পারবেন না। অতিরিক্ত ভিড় যাতে না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

৭। পুলিশের বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ থাকলে সে ব্যাপারেও দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

৮। কলকাতার হাসপাতালগুলির নজরদারির ক্ষেত্রে একজন ও প্রত্যেক জেলায় এক জন করে নোডাল অফিসার থাকবেন। তাঁদের ফোন নম্বর থাকবে প্রত্যেক ডাক্তারের কাছে।

৯। সরকারি হাসপাতালে পিআর নিয়োগ করা হবে। তিনটে শিফটে থাকবেন তিনজন করে পিআর। তাঁরাই রোগীর পরিবারের সঙ্গে কথা বলবেন।

লালবাজারের বৈঠকের পরেই কলকাতা পুলিশ ফেসবুক পেজে স্বাস্থ্য পরিষেবায় নিরাপত্তা বিষয়ক একটি পোস্ট করে, হেল্পলাইন নম্বর জানায়। পোস্টে লেখা হয়, কলকাতার সমস্ত সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতাল, মেডিক্যাল কলেজ, চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যুক্ত সব চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী এবং রোগীদের যে কোন নিরাপত্তা এবং সুরক্ষাজনিত সমস্যায় যাতে কলকাতা পুলিশ দ্রুত সাহায্য করতে পারে, সে জন্য চালু হল কলকাতা পুলিশের হেল্পলাইন নম্বর। নম্বরটি সপ্তাহের সাতদিনই চব্বিশ ঘন্টা চালু থাকবে। নম্বরটি হল, ১৮০০৩৪৫৮২৪৬।

দেখুন সেই পোস্ট।

স্বাস্থ্য পরিষেবায় নিরাপত্তা বিষয়ে কলকাতা পুলিশের হেল্পলাইন কলকাতার সমস্ত সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতাল, মেডিক্যাল কলেজ,…

Kolkata Police এতে পোস্ট করেছেন মঙ্গলবার, 18 জুন, 2019

Comments are closed.