বুধবার, মার্চ ২০

আলিপুরদুয়ারের জেলাশাসকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হোক, বলল আইএএস অ্যসোসিয়েশন

দ্য ওয়াল ব্যুরোভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর শাস্তির দাবি উঠতে শুরু করেছিল। এ বার সেই দাবি আরও জোরালো হলো আমলাদের সংগঠন আইএএস অ্যসোসিয়েশনের বক্তব্যে। আলিপুরদুয়ারের জেলাশাসক নিখিল নির্মলের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করল আইএএস অ্যাসোসিয়েশন।

সংগঠনের অফিসিয়াল টুইটার হ্যান্ডেলে তারা লেখে, “আইন নিজের হাতে তুলে নেওয়া ভুল। দায়িত্বশীল পদে থেকে আইন এবং নিয়মকে সম্মান জানানো সমস্ত আধিকারিকদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ।” দৃষ্টান্তমূলক শাস্তিকে সমর্থন জানিয়ে আমলাদের সংগঠনটি লেখে,  সভ্য সমাজে এটা কখনই মেনে নেওয়া যায় না।

গত রবিবার রাত থেকে তোলপাড় পড়ে গিয়েছিল প্রশাসনে। একটি ভিডিও ফুটেজে দেখা গিয়েছিল, আলিপুর দুয়ারের ডিএম নিখিল নির্মল এবং তাঁর স্ত্রী নন্দিনী কৃষ্ণণ, ফালাকাটা থানার ভিতরে ঢুকে এক যুবককে বেধড়ক পেটাচ্ছেন। অভিযোগ ছিল, বিনোদ সরকার নামের ওই যুবক ফেসবুকে ডিএম-এর স্ত্রীকে অশালীন মন্তব্য করেছেন। দ্য ওয়াল সবার প্রথম ভিডিও ফুটেজ-সহ খবর প্রকাশ করেছিল। মুহূর্তের মধ্যে ভাইরাল হয়ে যায় ফুটেজটি। সেই সময় থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকে প্রশ্ন তুলেছিলেন, ডিএম বলে কি তিনি লোক পেটাতে পারেন? তার অপরাধ যাই হোক। তার জন্য পুলিশ আছে, আদালত আছে। কিন্তু সে সবের তোয়াক্কা না করেই সস্ত্রীক নিখিল নির্মল নির্মমভাবে পেটাতে শুরু করেন ওই যুবককে।

সোমবার অভিযুক্ত বিনোদ সরকারকে কোর্টে তোলার সময় তিনিও আদালত চত্বরে বলেন, “আমি যদি দোষী হই তাহলে আদালতে বিচার হবে। ডিএম এবং তাঁর স্ত্রী আমায় মারলেন কেন।” বিতর্ক বাড়ছে দেখে নবান্নও ১৬ জানুয়ারি পর্যন্ত বাধ্যতামূলক ছুটিতে পাঠিয়ে দেয় ডিএম-কে। মঙ্গলবার ওই যুবকের বাবা ডিএম এবং তাঁর স্ত্রীর বিরুদ্ধে এফআইআর-ও দায়ের করেন। এ বার শাস্তির দাবিতে আওয়াজ তুলল আইএএস অ্যাসোসিয়েশনও। এখন দেখার ঠিক কী শাস্তি হয় আলিপুরদুয়ারের ডিএম-এর। বা আদৌ হয় কি না!

Shares

Comments are closed.