উপনির্বাচনে জোট ঘোষণা বিমান-সোমেনের, দুই আসনে লড়বে কংগ্রেস, একটিতে বামেরা

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

    দ্য ওয়াল ব্যুরো:  ২০১৬-র ভোটে যা হয়নি, উনিশে তিন বিধানসভা আসনের উপনির্বাচনে সেটাই হল। এই প্রথম নির্বাচনী কৌশল নিয়ে সংবাদমাধ্যমকে জানিয়ে বৈঠক করল বামফ্রন্ট এবং কংগ্রেস। হল যৌথ সাংবাদিক সম্মেলনও। আর সেখান থেকে বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু ও প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র জানিয়ে দিলেন, দুটি আসনে লড়বে কংগ্রেস। একটিতে লড়বে সিপিএম। প্রচার কর্মসূচি হবে যৌথ। দুই মেরুর মতাদর্শের শীর্ষ নেতারা পাশাপাশি বসে সাংবাদিক বৈঠক করে কর্মীদের বার্তা দিয়ে দিলেন, তৃণমূল, বিজেপিকে ঠেকানোর লড়াইয়ে কোনও ছুৎমার্গ রাখলে চলবে না।

    এদিন বিকেলে রাজ্য বামফ্রন্টের সমস্ত শরিকদলের শীর্ষ নেতারা ৩৭ নম্বর রিপন স্ট্রিটের একটি বাড়িতে কংগ্রেসের শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন। সেই বৈঠক শেষে বিমানবাবু জানান, বামফ্রন্ট আজকেই প্রার্থী ঘোষণা করে দিত। কিন্তু যেহেতু প্রদেশ কংগ্রেস আগামীকাল, বিষ্যুদবার তাদের প্রার্থী চূড়ান্ত করবে, তাই আগামীকালই তিন কেন্দ্রের প্রার্থী ঘোষণা হবে। খড়্গপুর ও কালিয়াগঞ্জে লড়বে কংগ্রেস। আর নদিয়ার করিমপুরে লড়বে বামফ্রন্ট মনোনীত সিপিএম প্রার্থী।

    মনে পড়ে লোকসভার কথা? বাম-কংগ্রেস জোট আলোচনা চলার মধ্যেই এক তরফা প্রথম দফায় প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করে দিয়েছিল আলিমুদ্দিন স্ট্রিট। লোকসভার সময়ে যে বাম শরিকরা কংগ্রেস সম্পর্কে নাক কুঁচকেছিল, সেই ফরওয়ার্ড ব্লক, আরএসপিও এদিন বৈঠকে উপস্থিত ছিল।

    পর্যবেক্ষকদের অনেকে মনে করেন, ২০১৬ সালে বিধানসভার ছ’মাস আগে থেকে যদি বাম-কংগ্রেস একসঙ্গে আন্দোলনে রাস্তায় থাকত, তাহলে আরও আসন জিতে তৃণমূলকে কঠিন চ্যালেঞ্জের সামনে ফেলে দিতে পারত। কিন্তু তা হয়নি। অধিকাংশ জায়গাতে দু’দলের নেতৃত্ব কর্মীদের বিষয়টি সম্পর্কে রাজনৈতিকভাবে অবগতই করতে পারেনি। ফলে যা হওয়ার তাই হয়েছে।

    তবে এই উপনির্বাচন নিয়েও সংশয় তৈরি হয়েছিল সনিয়া গান্ধীকে লেখা রাজ্যের বিরোধী দলনেতা তথা প্রবীণ কংগ্রেস নেতা আবদুল মান্নানের চিঠিতে। অন্তর্বর্তী কংগ্রেস সভানেত্রীকে মান্নান লিখেছিলেন, খড়্গপুর সদর আসন তৃণমূলকে সমর্থক করুক কংগ্রেস। এই অনুমতি যেন হাইকম্যান্ড দেয়। তাহলে বিজেপিকে ঠেকানো সম্ভব হবে। কিন্তু সেই মেঘ কেটে তিন আসনে জোট বা সমঝোতায় একরকমের সিলমোহর পড়ে গেল এদিন।

    পড়ুন ‘দ্য ওয়াল’ পুজো ম্যাগাজিন ২০১৯ -এ প্রকাশিত গল্প

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

You might also like

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More