বৃহস্পতিবার, জুলাই ১৮

বাড়ির সামনে বৃষ্টির জল জমা নিয়ে অশান্তি দুই প্রতিবেশীর, চলল গুলি, জখম ১

দ্য ওয়াল ব্যুরো: টানা বৃষ্টির জেরে এক বাড়ির জমা জল ঢুকে পড়ছে পাশের বাড়িতে। এই নিয়েই নাকি দীর্ঘদিনের ঝামেলা দুই প্রতিবেশীর। কিন্তু এই বর্ষায় অশান্তির পারদ চড়ল একটু বেশিই। প্রকাশ্যেই চলল গুলিও। জখম হয়েছেন এক যুবকও। জানা গিয়েছে, উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জের পূর্ব উকিলপাড়া এলাকায় ঘটেছে এই ঘটনা। আশঙ্কাজনক অবস্থায় আহত যুবককে ভর্তি করা হয়েছে রায়গঞ্জ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, রায়গঞ্জ শহরের পূর্ব উকিলপাড়ার নিবেদিতা নার্সিংহোম এলাকার বাসিন্দা বিশ্বজিৎ সরকারের সঙ্গে তাঁর প্রতিবেশী শেফালি দত্তের দীর্ঘদিন ধরেই ঝামেলা চলছিল। বিশ্বজিৎবাবুর অভিযোগ, সামান্য বৃষ্টি হলেই শেফালি দেবীর বাড়ির দিক থেকে জল এসে তাঁর বাড়ির সামনে জমা হয়। বহুবার সমস্যার সমাধান করতে চাইলেও লাভ হয়নি। বরং অশান্তি বেড়েছে। বিশ্বজিৎবাবুর কথায়, “অনেকবার ওঁকে বলেছি একটা ড্রেন কাটার ব্যবস্থা করতে। তাহলেই জমা জল আমার বাড়ির দিকে না এসে রাস্তার ড্রেনে চলে যাবে। কিন্তু উনি কোনও কথাই শোনেননি।”

এমনিতেই উত্তরবঙ্গে এখন টানা বৃষ্টি হচ্ছে। সোমবার রাত থেকে প্রচুর বৃষ্টি হওয়ায় স্বভাবতই জল জমেছে শেফালীদেবীর বাড়ির ভিতরের ওই নির্দিষ্ট অংশে। এবং সেই জল এসে ফের জমা হয়েছে বিশ্বজিৎবাবুর বাড়ির সামনের অংশে। ব্যাস! এরপরেই শুরু হয় গণ্ডগোল। শেফালীদেবীর অভিযোগ, বিশ্বজিৎবাবু ওই জমা জল মগে করে এনে তাঁর বাড়ির বিছানায় ঢেলে দিয়েছেন। অন্যদিকে বিশ্বজিৎবাবুর অভিযোগ, এরকম কোনও কিছুই হয়নি। সমস্যা সমাধানের জন্য কথা বলতেই তিনি গিয়েছিলেন শেফালীদেবীর বাড়িতে। সঙ্গে ছিলেন তাঁর ভাগ্নে। আচমকাই বাইরে থেকে বেশ কিছু লোক এসে চড়াও হয় তাঁদের উপর। অভিযোগ, বিশ্বজিৎবাবুর ভাগ্নেকে লক্ষ্য করে গুলিও চালায় দুষ্কৃতীরা।

ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। তারা জানিয়েছে, এই ঘটনায় এখনও কাউকে গ্রেফতার করা যায়নি। তবে ওই দুষ্কৃতীদের খুঁজে বের করার জন্য জোরকদমে শুরু হয়েছে তল্লাশি। স্থানীয়দের পাশাপাশি জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে শেফালীদেবীকেও।

Comments are closed.