বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ২১
TheWall
TheWall

আরও কাছে বুলবুল, আরও ভয়ঙ্কর, সন্ধ্যায় আছড়ে পড়ার সম্ভাবনা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: সাগরদ্বীপ থেকে আর মাত্র ৭০ কিলোমিটার দূরে রয়েছে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল। সন্ধে ৮টা থেকে রাত ১১টার মধ্যেই আছড়ে পড়বে স্থলভাগে। এমনটাই জানিয়েছে আবহাওয়া দফতর।

আপাতত ১৩৫ কিলোমিটার বেগে ধেয়ে আসছে বুলবুল। তবে আছড়ে পড়ার আগে গতিবেগ খানিকটা কমতে পারে বলে মত আবহবিদদের। হাওয়া অফিস জানিয়েছে, শনিবার দুপুরের পর থেকেই ওড়িশা উপকূলের সঙ্গে দূরত্ব বাড়িয়ে ক্রমশ গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের দিকে অগ্রসর হয়েছে বুলবুল। ইতিমধ্যেই বিভিন্ন উপকূলবর্তী এলাকা থেকে নিরাপদ জায়গায় সরানো হয়েছে এক লক্ষ তেতাল্লিশ হাজার মানুষকে। দক্ষিণ ২৪ পরগনা থেকে ৫৫ হাজার, উত্তর ২৪ পরগনা থেকে ৪৩,১০০ জন, পূর্ব মেদিনীপুর থেকে ২২,৪০০ জন, পশ্চিম মেদিনীপুর থেকে ১০০০ জন, হাওড়া থেকে ১০,৪০০ জন, হুগলি থেকে ৯৪২৬ জন এবং কলকাতা থেকে ২৫০০ মানুষকে উদ্ধার করে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ব্যবস্থা করা হয়েছে ত্রাণ শিবিরের।

দুর্যোগ মেকাবিলা করতে তৈরি নৌবাহিনী। বঙ্গোপসাগরে মোতায়েন হয়েছে নৌসেনার এয়ার ক্রাফট। টহলদারি চলছে বিশাপত্তনমেও। পরিস্থিতির উপর নজর রাখতে নবান্নে খোলা হয়েছে কন্ট্রোল রুম। শনিবার বিকেলেই সেখানে হাজির হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। উপকূলবর্তী বিভিন্ন জেলায় চলছে কড়া নজরদারি। কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে রেলের তরফেও। দিঘা, মন্দারমনি, তাজপুর এলাকায় চলছে কড়া নজরদারি।

শনিবার মাঝরাতে আছড়ে পড়ার কথা ছিল ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের। তবে সময় এগিয়ে সন্ধেবেলাতেই বুলবুল আছড়ে পড়বে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দফতর। শনিবার সকাল থেকেই টানা বৃষ্টির সঙ্গে ঝোড়ো হাওয়া বইছে কলকাতা ও সংলগ্ন এলাকায়। নাগাড়ে বৃষ্টির সঙ্গে উপকূল এলাকায় দিনের বেলাতেই প্রায় ৭০ থেকে ৮০ কিলোমিটার বেগে বইছিল ঝোড়ো হাওয়া। সন্ধের পর থেকে বেড়েছে হাওয়ার গতিবেগ। আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে সাগরদ্বীপের দিকে বাঁক নিয়েছে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল।

দুর্যোগের জন্য শনিবার সন্ধে ৬টা থেকে রবিবার সকাল ৬টা অর্থাৎ ১২ ঘণ্টার জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে কলকাতা বিমানবন্দর। বাতিল করা হয়েছে সব উড়ান। পশ্চিমবঙ্গের পাশাপাশি বাংলাদেশেও আছড়ে পড়বে বুলবুল। ইতিমধ্যেই পড়শি দেশের খেপুপাড়ার দিকে ঘূর্ণিঝড় বাঁক নিয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

Comments are closed.