লকডাউন ‘উড়িয়ে’ জেলায় জেলায় বিজেপির ভূমি পুজো, চলল ধরপাকড়ও

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ৫ অগস্ট লকডাউন ঘোষণা নিয়ে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে ফুঁসে উঠেছিল বিজেপি। দিলীপ ঘোষ, রাহুল সিনহাদের বক্তব্য ছিল, উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবে রামমন্দিরের ভূমি পুজোর দিন লকডাউন ঘোষণা করেছে রাজ্য সরকার। সেইসঙ্গে গেরুয়া শিবিরের হুঁশিয়ারি ছিল, লকডাউন প্রত্যাহার না হলে তা ভেঙেই ভূমিপুজো উদযাপন হবে বাংলায়।

বিজেপির হুঙ্কারে নবান্ন অন্য দিন বদল করলেও ৫ অগস্ট লকডাউন প্রত্যাহার করেনি। কিন্তু বুধবার দেখা গেল রাজ্যের উত্তর থেকে দক্ষিণ—ভূমিপুজোকে কর্মসূচি হিসেবে নিয়ে রাস্তায় নেমে পড়ল বিজেপি। কোথাও কোথাও পুলিশি ধড়পাকড়ের ঘটনাও ঘটল।

এদিন সকাল থেকেই দক্ষিণ ২৪ পরগনার ক্যানিং মহকুমার গোসাবা, বাসন্তী, ক্যানিং-সহ জীবনতলার বিভিন্ন প্রান্তে অনুষ্ঠিত হয় হোম-যজ্ঞ, পুজো-অর্চনা। সাধারণ মানুষের মধ্যে লাড্ডু বিলিও করতে দেখা যায় বিজেপি কর্মীদের। এছাড়াও বাটানগর, মথুরাপুর, বিষ্ণুপুর-সহ বিভিন্ন জায়গায় রামমন্দিরের ভূমিপুজো উপলক্ষে রাস্তায় নামে গেরুয়া শিবির।

এদিন পূর্ব বর্ধমানের নানা এলাকায় শ্রীরামচন্দ্রের পুজো অনুষ্ঠিত হয়। বর্ধমান শহরের ইছলাবাদ, কল্পতরু মাঠ, লোকো উদয়পল্লী-সহ বিভিন্ন এলাকায় রামপুজো করে বিজেপি। এদিন বিজেপি কর্মী সমর্থকদের মধ্যে এ নিয়ে উৎসাহ উদ্দীপনা ছিল চোখে পড়ার মতো। লকডাউনের কড়াকড়ি ছিল। শহরজুড়ে পুলিশপ ছিল সক্রিয়। তার মধ্যেও নানা এলাকায় পুরোহিত ডেকে, হোম-যজ্ঞ করে, মন্ত্র পড়ে পুজো হয়। পাশাপাশি হিন্দু জাগরণ মঞ্চের পক্ষ থেকে ভূমি পুজো হয় পূর্ব বর্ধমানের ভাতারের মহাপ্রভুতলায়।

দিলীপ ঘোষ, রাহুল সিনহারা অবশ্য নিজেদের বাড়িতেই ভূমিপুজো উদযাপন করেন। বিজেপি রাজ্যসভাপতিকে দেখা যায় নিউটাউনের আবাসনের ছাদে উঠে শঙ্খধ্বনি দিতে।

রামমন্দিরের ভিতপুজো উপলক্ষে সিউড়িতে বিজেপির কর্মসূচি ঘিরে উত্তেজনা ছড়ায়। লকডাউনের জন্য প্রকাশ্য জায়গায় পুজোতে জমায়েত করার ক্ষেত্রে বাধা দেয় পুলিশ। পুলিশের সঙ্গে তীব্র বচসায় জড়িয়ে পড়েন বিজেপি কর্মীরা। আটক করা হয় বীরভূম জেলা বিজেপির সাধারণ সম্পাদক উত্তম রজককে।

জলপাইগুড়িতে রাস্তায় বিজেপির ভূমি পুজো বন্ধ করে দেয় পুলিশ। জলপাইগুড়ির কংগ্রেস পাড়া এলাকার মাঠে প্যান্ডেল করে বিজেপি যুব মোর্চার জেলা সভাপতি ও তাদের মিডিয়া সেলের সদস্যরা মিলে রামের ছবি টাঙিয়ে ঘটা করে পুজোর আয়োজন করেছিলেন। খবর পেয়ে কোতোয়ালি থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী যায় ওই এলাকায়। বন্ধ করে দেওয়া হয় পুজো।

একই ছবি দেখা গিয়েছে বাঁকুড়া, হুগলি, মালদহ, পশ্চিম মেদিনীপুরের মতো জেলাগুলিতেও। ঝাড়গ্রামের গোপীবল্লভপুর বাজারে বাইক মিছিল করেন বিজেপি কর্মীরা। এছাড়াও হুগলির শ্রীরামপুর, আরামবাগ, বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরের মতো জায়গায় জাঁকজমক করে রামমন্দিরের ভূমিপুজো উদযাপিত হয় এদিন। উত্তর ২৪ পরগনাতেও বসিরহাট থেকে ব্যারাকপুর প্রায় সর্বত্র ভূমিপুজো করে বিজেপি। ভাটপাড়ায় যজ্ঞ করেন সাংসদ অর্জুন সিং।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

You might also like

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More