শুক্রবার, নভেম্বর ১৫

আছড়ে পড়েছে বুলবুল, আবহাওয়া দফতর কী বলছে, জানুন দশ তথ্য

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ঘূর্ণিঝড় বুলবুল শেষপর্যন্ত আছড়ে পড়েছে সাগরদ্বীপের কাছে। তার পর আবহাওয়া দফতর তাদের বুলেটিনে জানিয়েছে—

আগাম আশঙ্কা মতোই অতি ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড়ের চেহারা নিয়ে বুলবুল আছড়ে পড়েছে বকখালির পূর্ব দিকে। অর্থাৎ ব-দ্বীপ এলাকায়।

খুব দ্রুত পরিস্থিতির পরিবর্তন হয়েছে গত চার ঘন্টায়। ঘন্টায় ১৩০ থেকে ১৪০ কিলোমিটার বেগে ঝড় বইছিল। তার গতি ক্রমশ বেড়ে ঘন্টায় দেড়শ কিলোমিটার গতিবেগ হতে পারে।

ঘূর্ণিঝড় আছড়ে পড়ার এই গোটা প্রক্রিয়া চলবে তিন ঘন্টা ধরে। অর্থাৎ রাত ১২টা থেকে সাড়ে ১২টা পর্যন্ত ঝড়ের তাণ্ডব চলবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

মূলত সুন্দরবন ও দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা জেলায় ঝড়ের তীব্রতা থাকবে বেশি।

ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির আশঙ্কা করা হচ্ছে দক্ষিণবঙ্গের সাত জেলায়। ওই সাত জেলা হল, উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগণা, হাওড়া, হুগলি, পূর্ব মেদিনীপুর এবং নদিয়া জেলার দক্ষিণাঞ্চল।

এই সাত জেলাতেই বৃষ্টির সঙ্গে ঝোড়ো হাওয়া বইবে।
উপকূলবর্তী এলাকায় হাওয়ার গতিবেগ থাকবে ঘন্টায় ১১০ থেকে ১২০ কিলোমিটার।

কলকাতা, হাওড়া, হুগলিতে ঘন্টায় ৬০ থেকে ৬৫ কিলোমিটার গতিবেগে ঝড় বইতে পারে।

দক্ষিণ-পূর্ব দিক থেকে ক্রমশ পূর্ব দিকে ঝড় সরে যাবে বলে মনে করা হচ্ছে। অন্ততপক্ষে রাত ২টো পর্যন্ত তা চলবে।

ঝড়ের তীব্রতা যখন বেশি হবে তখন বৃষ্টির তীব্রতা বাড়ার আশঙ্কাও রয়েছে কলকাতা ও সংলগ্ন জেলাগুলিতে।

Comments are closed.