সোমবার, আগস্ট ১৯

মেসি ক্ষমা না চাইলে কি শাস্তির মুখে আর্জেন্টিনা ফুটবল ফেডারেশনও!

দ্য ওয়াল ব্যুরো : কোপা আমেরিকার সেমিফাইনালে ব্রাজিলের কাছে হারের পর দক্ষিণ আমেরিকার ফুটবল সংস্থাকে ‘দুর্নীতিগ্রস্ত’ বলেছিলেন মেসি। আর তারপর থেকেই শুরু হয় জল্পনা। শোনা যায়, মেসি যদি ক্ষমা না চান, তাহলে তাঁকে শাস্তির মুখে পড়তে হতে পারে। কিন্তু এ বার শোনা যাচ্ছে মেসি ক্ষমা না চাইলে শুধু তিনি নন, গোটা আর্জেন্টিনা ফুটবল ফেডারেশনকেই শাস্তির মুখ পড়তে হতে পারে।

কোপার সেমিতে ব্রাজিলের কাছে হারের পর নিজের ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন মেসি। তৃতীয় স্থান নির্ণায়ক ম্যাচে লাল কার্ড দেখার পর সেই ক্ষোভ আরও বাড়ে। মিক্সড জোনে দাঁড়িয়ে মেসি বলেন, “দক্ষিণ আমেরিকান ফুটবল ফেডারশন দুর্নীতিগ্রস্ত। ওরা ব্রাজিলকে কোপা চ্যাম্পিয়ন করার জন্য সব কিছু করছে। আমাদের ন্যায্য পেনাল্টি দেওয়া হচ্ছে না। ভুল লাল কার্ড দেখানো হচ্ছে। রেফারি ভার-প্রযুক্তির সাহায্য নিচ্ছেন না।” এমনকী পুরস্কার অনুষ্ঠানও বয়কট করেন তিনি।

কিন্তু মেসির এই ব্যবহার ভালোভাবে নেয়নি দক্ষিণ আমেরিকার ফুটবল ফেডারেশন। আর্জেন্টিনা ফুটবল ফেডারেশনের এক কর্তা জানিয়েছেন, এর মধ্যেই ম্যাচ রেফারি নিজের রিপোর্ট জমা দিয়েছেন। সেই রিপোর্ট কিন্তু মেসির বিপক্ষেই গিয়েছে। এই অবস্থায় আর্জেন্টিনা ফেডারেশন ছাড়া আর কেউ মেসির পক্ষে নেই। তাই যদি মেসি ক্ষমা না চায়, তাহলে তার দায় হয়তো নিতে হবে গোটা আর্জেন্টিনা ফেডারেশনকেই।

সামনেই বিশ্বকাপের প্রি-কোয়ালিফাইং রাউন্ড শুরু হবে। সেখানে তো দক্ষিণ আমেরিকা জোন থেকেই খেলতে হবে আর্জেন্টিনাকে। কিন্তু তাঁদের খেলার অনুমতি দেওয়া হবে তো? জানা যাচ্ছে, মেসি প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইলেই হয়তো সব বিবাদ মিটে যাবে। কিন্তু এই ঘটনার পর থেকে মেসির হাবভাব দেখে মনে হচ্ছে, তিনি ক্ষমা চাওয়ার জন্য প্রস্তুত নন। সেক্ষেত্রে যদি আর্জেন্টিনা ফুটবল ফেডারেশন ক্ষমা যায়, তাহলেও কি শাস্তি মুকুব হবে? সেই নিয়েই চলছে আলোচনা।

Comments are closed.