শনিবার, মার্চ ২৩

‘দেশ যদি সিদ্ধান্ত নেয়, পাক ম্যাচ বয়কট করবো আমরা,’ মুখ খুললেন কোহলি

দ্য ওয়াল ব্যুরো: অবশেষে মুখ খুললেন বিরাট কোহলি। পুলওয়ামায় সিআরপিএফ কনভয়ে জঙ্গি হামলার পর বিশ্বকাপে পাক ম্যাচ বয়কটের প্রসঙ্গে নিজের মতামত জানালেন ভারতীয় অধিনায়ক। বললেন, “দেশ যেটা সিদ্ধান্ত নেবে, আমরা সেটাই করবো।”

রবিবার থেকে শুরু হচ্ছে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে টি টোয়েন্টি সিরিজ। প্রথম ম্যাচ হবে ভাইজাগে। ম্যাচের আগে শনিবার সাংবাদিক সম্মেলন করতে এলে সাংবাদিকরা বিরাটকে এই প্রসঙ্গে প্রশ্ন করেন। উত্তরে কোহলি বলেন, “পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলায় যাঁরা শহিদ হয়েছেন তাঁদের পরিবারের প্রতি আমরা সমবেদনা জানাই। আমরা দেশের মানুষের পাশে আছি। দেশ ও বিসিসিআই যা সিদ্ধান্ত নেবে, আমরা সেটাই করবো।”

গত বৃহস্পতিবারের হামলার পর থেকেই দেশজুড়ে চড়ছে পাকিস্তান বিরোধী সুর। আম আদমি থেকে শুরু করে প্রাক্তন ও বর্তমান ক্রিকেটারদের অনেকেই দাবি করেছেন বিশ্বকাপে ভারতের উচিত পাক ম্যাচ বয়কট করা। সৌরভ, সেহওয়াগ, গম্ভীর, মহম্মদ কাইফ, হরভজন সিং, লক্ষ্মণ, আজহারউদ্দিনের মতো প্রাক্তন ক্রিকেটার ও মহম্মদ শামির মতো বর্তমান ক্রিকেটাররা এই ম্যাচ বয়কটের দাবি জানিয়েছেন। সৌরভ তো আরও একধাপ এগিয়ে শুধু ক্রিকেট নয়, পাকিস্তানের সঙ্গে সবরকম সম্পর্ক ছিন্ন করার দাবি জানিয়েছেন।

তবে ব্যক্তিগত ভাবে ম্যাচ বয়কটের পক্ষে নন সুনীল গাভাসকার ও শচীন তেণ্ডুলকর। ভারতীয় ক্রিকেটের দুই আইকন জানিয়েছেন, পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ম্যাচ না খেলা মানে তো ওদের হাতে দু’পয়েন্ট তুলে দেওয়া। বিশ্বকাপে ভারতকে কোনও দিন হারাতে পারেনি পাকিস্তান। সেই রেকর্ড বজায় থাক। পাকিস্তানকে হারিয়েই বরং শ্রদ্ধা জানানো হোক শহিদদের। তবে তাঁরা এও বলেছেন, শেষ পর্যন্ত সরকার যা চাইবে, সেটাকেই সমর্থন করবেন তাঁরা।

ভারতের প্রথম বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক কপিল দেব আবার এই ব্যাপারে সরকারের সিদ্ধান্তের উপরেই নির্ভর থাকতে চান। তিনি বলেছেন, সরকার যা সিদ্ধান্ত নেবে সেটাই মেনে চলা উচিত। এই ব্যাপারে বাকিদের কোনও মন্তব্য করা উচিত নয়। এ বার মুখ খুললেন অধিনায়ক। বুঝিয়ে দিলেন, দেশের মানুষ ও সরকার যা চাইবে সেটাই তাঁরা করবেন। শুক্রবারের বৈঠকেও সরকারের উপরেই এই সিদ্ধান্ত ছেড়ে দিয়েছে বিসিসিআইও। ২৭ ফেব্রুয়ারি দুবাইয়ে আইসিসির বৈঠক। তার আগেই কোনও সিদ্ধান্ত সরকারের তরফে জানানো হয় কিনা, সে দিকেই চোখ দেশবাসীর।

আরও পড়ুন

‘অনেক হয়েছে, আর নয়, সময় হয়েছে কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার’, পুলওয়ামা প্রসঙ্গে বিস্ফোরক বিদ্যা

Shares

Comments are closed.