শুক্রবার, জানুয়ারি ১৮

দুর্ভাগ্য! ভালো খেলেও আরবের কাছে হেরেই মাঠ ছাড়তে হলো সুনীলদের

দ্য ওয়াল ব্যুরো : ভাগ্য সহায় না থাকলে কী হয় দেখিয়ে দিল আবু ধাবির জেড্ডা স্টেডিয়াম। সংযুক্ত আরব আমিরশাহীর বিরুদ্ধে ভারতের দুরন্ত পারফরম্যান্সের পর আর কীই বা বলার থাকে। সহজ কিছু সুযোগ নষ্টের খেসারত দিতে হলো ভারতীয় দলকে। অন্তত ৪ গোলে জিততে পারতেন সুনীলরা। অন্যদিকে রক্ষণের সামান্য ভুলে গোল হজম করতে হলো। ভালো খেলেও ০-২ গোলে হারতে হলো ‘ব্লু আর্মি’কে।

আগের দিনের প্রথম এগারো এ দিন নামিয়েছিলেন কোচ স্টিভেন কনস্টানটাইন। এ দিন শুরু থেকেই আক্রমণের ঝড় তুলে আনতে থাকে ভারত। দুই প্রান্তে উদান্ত ও হোলিচরণের গতি ব্যবহার করে আক্রমণ তুলে আনছিলেন সুনীলরা। প্রথম ১০ মিনিটের মধ্যেই সুযোগ পেয়ে গিয়েছিলেন তরুণ আশিক কুরিয়েন। কিন্তু তাঁর শট দুরন্ত বাঁচান আরবের গোলকিপার খালিদ ইসাবিলাল।

১৫ মিনিটের পর কিছুটা বল ধরে খেলার রাশ নিজেদের দখলে আনার চেষ্টা করছিলেন খালিদ, হামাদিরা। কিন্তু ভারতীয় খেলোয়াড়দের চাপে স্কোয়্যার পাস আর ব্যাক পাসেই আটকে থাকছিল আরব। ফলে বাধ্য হয়ে দূর থেকেই শট নিচ্ছিলেন আরবের ফুটবলাররা। এতে গুরপ্রীত সিং সান্ধুর কোনও সমস্যা হয়নি।

২৭ মিনিটের মাথায় ডান প্রান্তে বল ধরে অনিরুদ্ধের জন্য বল রাখেন উদান্ত। অনিরুদ্ধের ঠিকানা লেখা ক্রস দুরন্ত হেড করেন সুনীল। কিন্তু সরাসরি তা গোলকিপার খালিলের হাতে গিয়ে পড়ে। ফলে গোল আসেনি।

৩০ মিনিটের পর থেকে খেলায় ফেরে আরব আমিরশাহী। বেশ কয়েকটি সুযোগ তৈরি করে তারা। কিন্তু ভারতের ব্যাক ফোরের সঙ্গে উদান্ত ও অনিরুদ্ধ যোগ দেওয়ায় ফসল তুলতে পারেনি আরব। কিন্তু ৪২ মিনিটের মাথায় ভেঙে পড়ল ভারতীয় ডিফেন্স। প্রতি আক্রমণ থেকে হামাদি দুই ডিফেন্ডার আনাস ও সন্দেশকে গতিতে পরাস্ত করে বল রাখেন মুবারকের জন্য। গুরপ্রীতকে পরাস্ত করে বল জালে জড়িয়ে দেন মুবারক। সংযুক্ত আরব আমিরশাহী এগিয়ে যায় ১-০ গোলে।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই গোল শোধের জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে ভারত। জেজেকে নামিয়ে আক্রমণে আরও ধার বাড়ান কনস্টানটাইন। ৫৩ মিনিটের মাথায় অনিরুদ্ধের ফ্রিকিক থেকে ফিরতি বলে জেজের শট অল্পের জন্য বাইরে চলে যায়। দু’মিনিট পরেই সুনীলের সঙ্গে ওয়ান-টু খেলে উদান্তর শট ক্রস বারে লেগে বেরিয়ে যায়।

কিন্তু সুনীলরা হাল ছেড়ে দেননি। একের পর এক আক্রমণ তুলে আনতে থাকেন তাঁরা। বেশ খানিকটা রক্ষণাত্মক হয়ে ওঠে আরব। মাঝেমধ্যে প্রতি আক্রমণ থেকে সুযোগ তৈরি করছিল সংযুক্ত আরব আমিরশাহী। আসলে আরবের শরীরী ক্ষমতার সঙ্গে পেরে উঠছিলেন না সুনীলরা। ৭৪ মিনিটের মাথায় আল-হামাদির শট পোস্টে লেগে ফেরে।

শেষ মুহূর্তে অল আউট অ্যাটাকে উঠে যাওয়ার জন্য প্রতি আক্রমণ থেকে ৮৯ মিনিটের মাথায় ডিফেন্সকে টপকে আরবের হয়ে দ্বিতীয় গোল করেন আলি মাখুট। আর ম্যাচে ফিরতে পারেনি ভারত। ম্যাচ হেরেই মাঠ ছাড়তে হয় সুনীলদের।

এই হারের ফলে ২ ম্যাচে ৩ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে নেমে গেল ভারত। ৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে উঠে এলে সংযুক্ত আরব আমিরশাহী। এখন সামনে বাহরিন ম্যাচ। সেই ম্যাচে জয় তুলতে ঝাঁপাবেন সুনীলরা।

Shares

Comments are closed.