রবিবার, সেপ্টেম্বর ২২

১৬ মাস পর ফিরেই অ্যাশেজে সেঞ্চুরি, বিরাট-শচীনের রেকর্ড ভাঙলেন স্মিথ

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ১৬ মাস পরে টেস্ট ক্রিকেটের আঙিনায় প্রত্যাবর্তনেই সেঞ্চুরি। শুধু সেঞ্চুরিই নয়, দলকে খাদ থেকে টেনে তুললেন স্টিভ স্মিথ। তাঁর ব্যাটে ভর করেই অ্যাসেজের প্রথম টেস্টে লড়াইয়ে থাকল অস্ট্রেলিয়া। আর এই সেঞ্চুরির সঙ্গেই শচীন তেণ্ডুলকর, বিরাট কোহলির রেকর্ড ভাঙলেন তিনি।

প্রথম টেস্টে বার্মিংহ্যামে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই ব্রড ও ওকসের বিধ্বংসী বোলিংয়ের সামনে ভেঙে পড়ে অজি ব্যাটিং। আইপিএল ও বিশ্বকাপে দুরন্ত ছন্দে থাকা ওয়ার্নারও রান পাননি। ১২২ রানে ৮ উইকেট পড়ে যায় অস্ট্রেলিয়ার। তারপরেই ১০ ও ১১ নম্বর ক্রিকেটারকে নিয়ে লড়াউ করলেন স্মিথ। প্রথমে পিটার সিডল ও তারপর ন্যাথন লিওঁকে নিয়ে এগিয়ে চললেন স্মিথ। দু’জনের সঙ্গে মিলে ১৬২ রানের পার্টনারশিপ গড়লেন তিনি। শেষ পর্যন্ত ১৪৪ রান করে আউট হন স্মিথ।

এ দিন সেঞ্চুরির সঙ্গেই টেস্ট ক্রিকেটে ২৪ তম সেঞ্চুরি করলেন স্মিথ। মাত্র ১১৮ ইনিংসে এই রেকর্ড করলেন স্মিথ। ভেঙে ফেললেন বিরাট ও শচীনের রেকর্ড। বিরাট ২৪টা সেঞ্চুরি করতে নিয়েছিলেন ১২৩ ইনিংস। শচীন ১২৫ ইনিংস। স্মিথের আগে রয়েছেন কেবলমাত্র স্যার ডন ব্র্যাডম্যান। ৬৬ ইনিংসে ২৪ সেঞ্চুরি করেছিলেন তিনি। সেইসঙ্গে অ্যাশেজে ৯টি সেঞ্চুরি করে ফেললেন স্মিথ।

এ দিন কিন্তু বার্মিংহ্যামের গ্যালারি সারাক্ষণ কটাক্ষ করেছেন স্মিথকে। তিনি এক রান নিয়েছেন, আর গ্যালারি থেকে এসেছে তীর্যক মন্তব্য। কিন্তু তারপরেও নিজের ফোকাস একটুর জন্যও হারাননি অস্ট্রেলিয়ার এই প্রাক্তন অধিনায়ক। দলের দায়িত্ব নিজের কাঁধে একা বয়ে নিয়ে গিয়েছেন। একটা ভালো জায়গায় শেষ করেছেন দলের প্রথম ইনিংস। দেখিয়ে দিয়েছেন, নির্বাসনের ফলে যতই মাঠের বাইরে বসে থাকতে হোক না কেন, প্রতিভা ও ক্ষিদেটা সেই একই আছে।

Comments are closed.