সোমবার, অক্টোবর ২১

ব্যাটিং ব্যর্থতায় হেরে সিরিজ ড্র কোহলিদের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: টসে জিতে চিন্নাস্বামীর পাটা উইকেটে বিরাট কোহলিকে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিতে দেখে অবাক হয়েছিলেন ধারাভাষ্যকার থেকে শুরু করে সমর্থকরা। বিরাট বলেছিলেন, তিনি দেখতে চান সব পরিস্থিতিতে দল কতটা তৈরি। ম্যাচের ফলাফলে হতাশ হবেন কোহলি। ভাল জায়গা থেকে ম্যাচটা দক্ষিণ আফ্রিকাকে উপহার দিয়ে এলেন তাঁরা। ব্যাটিংয়ে ধারাবাহিকতার অভাব চোখে পড়ল। চাপের মধ্যে দাঁড়িয়ে দায়িত্ব নিতে পারলেন না কেউ। তারই খেসারত দিতে হল ভারতকে।

এ দিনও শুরুতেই রোহিতের উইকেট হারায় ভারত। তারপরে পার্টনারশিপ গড়েন ধাওয়ান ও কোহলি। ভাল ছন্দে ছিলেন ধাওয়ান। কিন্তু ৩৬ রানের মাথায় বড় শট খেলতে গিয়ে আউট হলেন। পরের ওভারেই স্কোয়্যার লেগের উপর দিয়ে ছক্কা মারতে গিয়ে ৯ রান করে আউট হলেন বিরাট।

এই দুই উইকেট পড়ার পর আর সামলাতে পারল না ভারতীয় ব্যাটিং। পন্থ ১৯ রান করলেও ছন্দে ছিলেন না। বোঝা যাচ্ছিল খারাপ ফর্মের চাপ পড়ছে তাঁর ব্যাটিংয়ে। রান পাননি শ্রেয়স, ক্রুনালও। শেষদিকে জাদেজা ও হার্দিক কিছুটা চেষ্টা করলেও ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৩৯ রানে শেষ হয় ভারতের ইনিংস।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুতে কিছুটা চাপে থাকলেও তারপর মেরে খেলা শুরু করেন দুই প্রোটিয়া ওপেনার ডি কক ও হেনড্রিক্স। আগের ম্যাচের ছন্দেই ছিলেন ডি কক। হেনড্রিক্সকে ২৮ রানের মাথায় হার্দিক আউট করলেও চালিয়ে খেললেন অধিনায়ক ডি কক। তাঁকে সঙ্গ দিলেন বাভুমা। শেষ পর্যন্ত মাত্র ১৬.৫ ওভারে ১ উইকেট হারিয়ে জয় তুলে নিল দক্ষিণ আফ্রিকা। ডি কক ৫২ বলে ৭৯ ও বাভুমা ২৭ করে অপরাজিত থাকেন।

এই হারের ফলে ১-১ ব্যবধানে শেষ হল টি ২০ সিরিজ। এরপর অবশ্য আসল পরীক্ষা। টেস্ট সিরিজে নিজেদের আধিপত্য ধরে রাখার চেষ্টা করবে ভারত। তবে এ দিনের ম্যাচে কোহলির সামনে উঠে গেল বেশ কিছু প্রশ্ন। টি ২০ বিশ্বকাপের আগে সেই সব প্রশ্নের জবাব কিন্তু পেতেই হবে ভারতকে।

পড়তে ভুলবেন না…

Comments are closed.