সোমবার, ডিসেম্বর ১৬
TheWall
TheWall

তিন শয্যাসঙ্গিনীকে নিয়ে রাতভর উল্লাস, পাড়া জাগিয়ে নতুন রেকর্ড ওয়ার্নের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: তেরো বছর আগের নিজের করা রেকর্ডই ভেঙে ফেললেন অজি কিংবদন্তী স্পিনার শেন ওয়ার্ন।

২০০৬ সালে ইংল্যান্ডে দুই ব্রিটিশ মডেলের সঙ্গে ত্রিমুখী যৌন সংসর্গে জড়িয়েছিলেন শেন ওয়ার্ন। এই ঘটনার একটা ভিডিয়োও বেরিয়েছিল। সেই ভিডিয়ো ঝড় তুলেছিল ক্রিকেট মহলে। সেই রেকর্ডও এ বার ভেঙে দিলেন ওয়ার্ন। ৪৯ বছরের এই ‘চিরতরুণ’ স্পিনার এ বার চতুর্মুখী যৌনসংসর্গের ঘটনা ঘটালেন।

ইংল্যান্ডের ট্যাবলয়েড ‘দ্য সান’ সম্প্রতি সেই খবর প্রকাশ করেছে। শিরোনাম দেওয়া হয়েছে ‘হর্নি ওয়ার্নি।’ লর্ডস থেকে মাত্র পাঁচ মিনিট দূরেই বাড়ি ওয়ার্নের। ওই ট্যাবলয়েডে দাবি করা হয়েছে, ওই বাড়িতেই বান্ধবী ও অন্য দুই যৌনকর্মীর সঙ্গে সঙ্গম করেন তিনি। এমনকী বাড়ির জানলা খোলা রেখেই নাকি সব কাজ করছিলেন তাঁরা। তাঁদের আওয়াজে গভীর রাতে নাকি আশেপাশের বাড়ির সবাই জেগে গিয়েছিলেন।

শেন ওয়ার্নের বান্ধবীর নাম জানা না গেলেও দুই মডেলের নাম জানিয়েছে ট্যাবলয়েড। সেখানে জানানো হয়েছে, এক যৌনকর্মীর নাম দাভিনা। ১৯ বছরের দাভিনার বাড়ি মল্ডোভিয়াতে। অন্যজনের নাম পপি। ২৭ বছরের পপির বাড়ি ইউরোপে। কিন্তু কোন দেশে তা জানা যায়নি। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, ওয়ার্নের বান্ধবীই নাকি দু’জনকে গাড়িতে করে নিয়ে আসেন। তাঁদের প্রত্যেকের পরনেই খোলামেলা পোশাক ছিল।

দু’ঘণ্টা তাঁরা ছিলেন ওয়ার্নের বাড়িতে। পাড়ার কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শী জানিয়েছেন, “জানলা খোলা রেখেই তিন জন মহিলার সঙ্গে উদ্দাম যৌন-সংসর্গে মেতেছিলেন শেন ওয়ার্ন। পাড়ার বাসিন্দাদের কে কী দেখতে বা শুনতে পাচ্ছেন, সে ব্যাপারে বিন্দুমাত্র তোয়াক্কা করেননি তিনি। ঘরের ভিতরের সব শব্দই স্পষ্ট বাইরে আসছিল। পাড়ার সব বাড়িই প্রায় জেগে গিয়েছিল। সব চেয়ে বেশি শব্দ আসছিল পার্কিংয়ের দিকে থাকা বেডরুমের জানলা দিয়ে।”

অবশ্য যাঁকে নিয়ে এই শোরগোল, সেই শেন ওয়ার্ন কিন্তু এই বিষয়ে কোনও মন্তব্য করেননি। সকালে তাঁকে দেখা যায় খালি পায়ে এসে নিজের গাড়িতে উঠছেন। এর আগেও বারবার ওয়ার্নের বিরুদ্ধে এই ধরণের অভিযোগ উঠেছে। কখনও কোনও নার্সকে অশালীন মেসেজ করা, তো কখনও ব্রিটিশ মডেল বান্ধবী লিজ হার্লির সঙ্গে প্রেমের ঘটনা। এমনকী তাঁর যৌন বাসনার জন্যই তাঁকে ডিভোর্স দিয়েছিলেন স্ত্রী। তখনও একই রকমের মির্লিপ্ত ছিলেন শতাব্দীর সেরা বল করা এই স্পিন বোলার। এ বারও তার অন্যথা হলো না।

Comments are closed.