এখনও মনের মধ্যে বাচ্চাটা বেঁচে আছে, বৃষ্টির মজা নেওয়া শচীনের ভিডিও শেয়ার সারার

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

    দ্য ওয়াল ব্যুরো: খেলা ছেড়ে দেওয়ার পর থেকে যেন সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেক বেশি অ্যাকটিভ মাস্টার ব্লাস্টার শচীন তেণ্ডুলকর। মাঝেমধ্যেই খেলা নিয়ে নিজের ভাবনা চিন্তার কথা জানান শচীন। আবার কখনও নিজের ব্যক্তিগত জীবনের মূহূর্তও ফ্যানদের সামনে প্রকাশ করেন তিনি। সেটা লকডাউনের সময় নিজের ও ছেলের চুল কেটে দেওয়া হোক, কিংবা রান্না করা, সব সময়ই নিজের প্রতিভার পরিচয় দিয়েছেন মাস্টার ব্লাস্টার। তাঁর সেরকমই একটা স্বভাবের পরিচয় ফের একবার পাওয়া গেল।

    সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন শচীন। সেখানে দেখা যাচ্ছে বাড়ির লনে বৃষ্টি উপভোগ করছেন তিনি। স্লোমোশন ক্যামেরায় ভিডিওটি তোলা হয়েছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে বৃষ্টি হচ্ছে, আর তার নীচে দাঁড়িয়ে ভিজছেন শচীন। বাচ্চাদের মতো ঘুরে ঘুরে রীতিমতো বৃষ্টির মজা নিচ্ছেন।

    এই ভিডিওটি তুলেছেন তাঁর মেয়ে সারা তেণ্ডুলকর। ভিডিও তুলতে তুলতে সারাকে বলতে শোনা যায়, “ওঁর মনের মধ্যে থাকা বাচ্চাটা এখনও বেঁচে আছে। মুম্বইয়ের বৃষ্টির মজা নিচ্ছে।” ভিডিওটি নিজের ইন্সটাগ্রামে শেয়ার করেন শচীন। সেখানে তিনি লেখেন, “আমার প্রিয় ক্যামেরাওম্যান সারা আমার জীবনের মজা নেওয়ার মুহূর্তেগুলো ক্যামেরাবন্দি করেছে। বৃষ্টি সবসময় আমাকে ছোটবেলায় নিয়ে যায়।”

    View this post on Instagram

    My favourite camerawoman 📸, @saratendulkar captured me enjoying the simpler joys of life! Raindrops always bring back my childhood memories. #mumbairains

    A post shared by Sachin Tendulkar (@sachintendulkar) on

    ইতিমধ্যেই এই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল। শচীনের অসংখ্য ভক্ত লাইক ও কমেন্টের বন্যায় ভাসিয়ে দিয়েছেন সোশ্যাল মিডিয়া। সারারও প্রশংসা শোনা গেছে তাদের মুখে। ভক্তদের সামনে মাস্টার ব্লাস্টারের এই অন্য চেহারা তুলে ধরার জন্যই সারার প্রশংসা করেছেন সবাই।

    সম্প্রতি ক্রিকেটের আরও একটা বিষয়ে মুখ খুলতে শোনা গিয়েছে শচীনকে। তিনি চান, ক্রিকেটে এলবিডাবলুর ক্ষেত্রে তৃতীয় আম্পায়ারের ভূমিকাকে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হোক। তাঁর মতে, “আমি আইসিসির সঙ্গে একটা বিষয়ে একমত হতে পারি না। সেটা হল ডিআরএস সব ক্ষেত্রে কেন এত বেশি ব্যবহার করতে হবে। তৃতীয় আম্পায়ারকে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হোক।”

    সম্প্রতি ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে দুই ইনিংসে অনেকগুলি ক্ষেত্রে এলবিডাবলু সিদ্ধান্তের ক্ষেত্রে রিভিউ নিতে হয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজকে। সবগুলি সিদ্ধান্তই তাদের পক্ষে যায়। অর্থাৎ মাঠে থাকা আম্পায়ার ভুল সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। তাই এই কথা বলেছেন শচীন। অন্যতম প্রিয় বন্ধু ব্রায়ান চার্লস লারার সঙ্গে অনলাইনে কথা বলার সময় এই বক্তব্য রাখেন শচীন। তিনি বলেন, আইসিসির উচিত এই বিষয়টি ভেবে দেখা।

    খেলোয়াড় জীবনে বরাবরই ডিআরএসের বিপক্ষে কথা বলতে শোনা গিয়েছে শচীনকে। ২০১৩ সালে অবসর নেওয়ার আগে পর্যন্ত এই রিভিউয়ের যথার্থতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন তিনি। আর তাই হয়তো ২০১৬ সালে সবার শেষে রিভিউ নিয়ে হ্যাঁ বলে ভারত। ফের একবার এই সিস্টেম নিয়ে প্রশ্ন তুললেন তিনি।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

You might also like

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More