সোমবার, অক্টোবর ২২

‘এক রাজ্য, এক ভোট’, সুপ্রিম কোর্টের রায়ে স্বস্তিতে বিসিসিআই

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ‘এক রাজ্য, এক ভোট’ নিয়ে দেশের শীর্ষ আদালতের রায়ে স্বস্তিতে বিসিসিআই। লোধা কমিটির সংস্কার খারিজ করল সুপ্রিম কোর্ট। এর জেরে স্বস্তিতে বেশ কয়েকটি রাজ্যের ক্রিকেট সংস্থাও।

মুম্বই সহ ৬ টি ক্রিকেট সংস্থার পূর্ণ সদস্যপদ বহাল থাকল এই রায়ের ফলে। কুলিং পিরিয়ড নিয়েও বিসিসিআইয়ের দাবি মানল দেশের শীর্ষ আদালত। দেশের ক্রিকেট কর্তাদের বয়সসীমা থেকে শুরু করে, তাঁদের পদের মেয়াদ ও ক্রিকেটের সার্বিক উন্নয়নের জন্য ঢালাও পরিবর্তনের সুপারিশ করা হয়েছিল লোধা কমিটির রিপোর্টে। সত্তরের বেশি বয়সের কর্তাদের ক্রিকেট প্রশাসনে যেমন থাকা যাবে না, তেমনই তিন বছর অন্তর ক্রিকেট কর্তাদের তিন বছরের জন্য সাময়িক বিশ্রামে যাওয়ার সুপারিশ করেছিল লোধা কমিশন।

বৃহস্পতিবারের শুনানিতে এই মামলার বিচারপতিরা তিন বছর অন্তর কর্তাদের সাময়িক বিশ্রামে যাওয়ার (কুলিং অফ পিরিয়ড) লোধা কমিশনের সুপারিশ খারিজ করে দেন। দেশের শীর্ষ আদালতের নির্দেশে এখন থেকে তিন বছরের পরিবর্তে ছ’বছর অন্তর ‘কুলিং অফ পিরিয়ড’ বা বিশ্রামে যেতে হবে বোর্ডের কর্মকর্তাদের। প্রসঙ্গত, এ ক্ষেত্রে বিসিসিআই-এর আর্জি ছিল, বোর্ডের কর্মকর্তাদের বাধ্যতামূলক কুলিং অফ পিরিয়ড-এর মেয়াদ বাড়িয়ে ৯ বছর করার।

গত ৫ জুলাই সুপ্রিম কোর্ট এই মামলা দু’সপ্তাহের জন্য স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নেয়। ওই দিনই শুনানিতে এই মামলার বিচারপতিরা মন্তব্য করেছিলেন, তিন বছর অন্তর কর্তাদের সাময়িক বিশ্রামে যাওয়ার সুপারিশের প্রয়োজন নাও হতে পারে। শুধু তাই নয়, এক রাজ্য এক ভোটের বিষয়টিও নতুন করে বিবেচনা করার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন তাঁরা। কিন্তু এর পরই চূড়ান্ত রায়দান আরও দু’সপ্তাহেরও বেশি পিছিয়ে যায়। আজ এই মামলার রায়ের উপর নির্ভর করছিল ভারতীয় ক্রিকেট প্রশাসনের ভবিষ্যৎ।

আজকের এই রায়ে আগের সিদ্ধান্তে অবিচল থেকে এক রাজ্য এক ভোট আর ‘কুলিং অফ পিরিয়ড’— এই দুই ইস্যুতেই লোধা কমিশনের সুপারিশ খারিজ করে দিলেন মামলার সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতিরা। তবে লোধা কমিশনের সুপারিশ মেনে সত্তরের বেশি বয়সের কর্তাদের ক্রিকেট প্রশাসন থেকে অবসরের বিষয়টিকে মান্যতা দিয়েছে দেশের সর্বোচ্চ আদালত।

Shares

Leave A Reply