রবিবার, সেপ্টেম্বর ২২

বিশ্বকাপ কোয়ালিফায়ার: সুনীলের বিশ্বমানের গোলে এগিয়েও ডিফেন্সের দোষে হার ভারতের

  • 105
  •  
  •  
    105
    Shares

দ্য ওয়াল ব্যুরো : সেই এক ছবি। প্রথমার্ধে দুরন্ত ফুটবল খেলে এগিয়ে যাওয়া। দ্বিতীয়ার্ধে দম হারিয়ে চাপে পড়ে গোল খাওয়া। বিশ্বকাপ কোয়ালিফায়ারের প্রথম ম্যাচে সুনীল ছেত্রীর গোলে জয়ের স্বপ্ন দেখেছিল ভারত। কিন্তু শেষ ১০ মিনিটে সব স্বপ্ন ভেঙে গেল। জোড়া গোল করলেন ওমানের আল মন্দার। ১-২ গোলে হার দিয়েই বিশ্বকাপ কোয়ালিফায়ার শুরু হলো ভারতের।

প্রথমার্ধেই ৩-০ গোলে এগিয়ে যেতে পারত ইগর স্টিমাচের ভারত। শুরু থেকেই ফিফা র‍্যাঙ্কিং-এ এগিয়ে থাকা ওমানের বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মক ফুটবল শুরু করেছিলেন সুনীল ছেত্রীরা। দুই প্রান্ত ধরে উদান্ত সিং ও আশিক কুরুনিয়ান বারবার উঠে আসছিলেন। গোলের আশেপাশে শিকারি নেকড়ের মতো ঘোরাফেরা করছিলেন সুনীল। প্রথম ২০ মিনিটের মধ্যেই সহজ সুযোগ নষ্ট করেন উদান্ত ও সন্দেশ ঝিঙ্গান।

কিন্তু নিজের সুনাম বজায় রাখলেন সুনীল। ২৪ মিনিটের মাথায় বক্সের বাইরে থেকে ফ্রিকিক পায় ভারত। বক্সের মধ্যে অরক্ষিত জায়গায় সুনীলের উদ্দেশে বল রাখেন আশিক। ঠাণ্ডা মাথায় বাঁ পায়ের জোরালো শটে জাল কাঁপিয়ে দেশকে এগিয়ে দেন সুনীল। দেশের হয়ে নিজের ৭২ নম্বর গোল করলেন সুনীল। গোল খেয়ে সমতা ফেরানোর জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে ওমান। প্রথমার্ধের শেষদিকে ছ’গজ দূর থেকে ওমানের স্ট্রাইকারের হেড দারুণ রিফ্লেক্সে বাঁচান গুরপ্রীত সিং সান্ধু। ফলে ১-০ ব্যবধানেই মাঠ ছাড়ে দু’দল।

দ্বিতীয়ার্ধে দাপট নিয়েই খেলা শুরু করে ওমান। প্রথম ১০ মিনিটের মধ্যেই দু-তিনটে সুযোগ তৈরি করে তারা। কিন্তু এ দিন তেকাঠির নীচে জমাট ছিলেন গুরপ্রীত। তাঁর দস্তানা ভেদ করা যায়নি। ৫২ মিনিটের মাথায় বক্সের মধ্যে থেকে বল ক্লিয়ার করতে গিয়ে আর একটু হলে নিজের গোলেই ঢুকিয়ে দিচ্ছিলেন উদান্ত।

৫৫ মিনিটের পরে পরিকল্পনায় বদল ঘটান কোচ স্টিমাচ। মাঝমাঠে অনিরুদ্ধ, আদিল খান ও রওলিন বর্জেসকে ডিফেন্সের সামনে স্ক্রিন হিসেবে দাঁড় করিয়ে দেন তিনি। সুনীল কিছুটা পিছিয়ে আসেন। আশিক কুরুনিয়ান লোন স্ট্রাইকার হিসেবে খেলা শুরু করেন। তাঁর সঙ্গে উদান্তর গতিকে ব্যবহার করার চেষ্টা করেন কোচ। নামান ছাংতেকে। ফলে মাঝেমধ্যেই আক্রমণে উঠতে থাকে ভারত। কিন্তু গোলের মুখ খোলেনি।

৮২ মিনিটের মাথায় লং বল ধরে আগুয়ান গুরপ্রীতের মাথার উপর দিয়ে চিপ করে গোলে করে সমতা ফেরান আল মন্দার। তারপরের মিনিটেই সুযোগ পান ছাংতে। মনবীর সিং-এর মাইনাসে পা ছোঁয়াতে পারলেই গোল পেত ভারত। ৮৬ মিনিটের মাথায় সন্দেশ ঝিঙ্গানের দুরন্ত ডিফেন্সে গোল বাঁচে ভারতের।

৮৯ মিনিটে বাঁ প্রান্তে বল ধরে ভেতরে ঢুকে ডান পায়ের কোনাকুনি শটে গুরপ্রীতকে পরাস্ত করে নিজের ও দলের দ্বিতীয় গোল করেন আল মন্দার। ফের একবার এগিয়ে গিয়েও পিছিয়ে পরে ভারত। আর ম্যাচে ফিরতে পারেনি ভারত। শেষ পর্যন্ত ১-২ গোলে হেরেই বিশ্বকাপ কোয়ালিফায়ার শুরু হলো সুনীল ছেত্রীদের।

Comments are closed.