সোমবার, অক্টোবর ২১

‘চরম শিক্ষা হয়েছে’, ধোনিকে নিয়ে করা টুইট প্রসঙ্গে এমন কেন বললেন বিরাট!

দ্য ওয়াল ব্যুরো : সম্প্রতি ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির সঙ্গে নিজের একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছিলেন ভারতের বর্তমান অধিনায়ক বিরাট কোহলি। এই ছবি প্রকাশের সঙ্গে সঙ্গেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ধোনির অবসর নিয়ে জল্পনা শুরু হয়। যদিও পরবর্তীকালে ধোনির স্ত্রী সাক্ষী ও ভারতের নির্বাচক প্রধান এমএসকে প্রসাদ একে গুজব বলেই উড়িয়ে দেন। তবে এই ছবি শেয়ার করে যে তাঁর চরম শিক্ষা হয়েছে, তা জানাতে ভুললেন না কোহলি।

দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে রবিবার টি ২০ সিরিজ শুরু হচ্ছে ভারতের। তার আগে সাংবাদিক সম্মেলনে কোহলিকে ওই ছবির ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, “আমি এমনই বাড়িতে বসে ছিলাম। আমি কিছু না ভেবেই ছবিটা সোশ্যাল মিডিয়ায় দিয়েছি। সেটা একটা খবর হয়ে গেল।” তারপরেই ভারত অধিনায়ক বলেন, “আমার চরম শিক্ষা হয়েছে। আমি বুঝতে পেরেছি, যেভাবে আমি ভাবছি, সেভাবে মানুষ ভাবছে না। আমি যখন ছবিটা দিই, তখন মাহি ভাইয়ের অবসরের ভাবনা আমার দূরের চিন্তাতেও ছিল না।”

সম্প্রতি ২০১৬ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে টি ২০ বিশ্বকাপ কোয়ার্টার ফাইনালের একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেন বিরাট। ম্যাচ জেতার পর সেখানে ধোনি ও কোহলি দু’জনেই ছিলেন। ক্যাপশনে বিরাট লেখেন, “এই ম্যাচের কথা আমি সারা জীবনে ভুলব না। এই লোকটা ( পড়ুন ধোনি ) আমাকে ফিটনেস টেস্টের মতো দৌড় করিয়েছিল।” এই টুইটের পরেই ধোনির অবসর নিয়ে জল্পনা শুরু হয়।

কেন এই টুইট তিনি করেছিলেন, সে ব্যাপারেও সাফাই দেন বিরাট। তিনি বলেন, “আমি সত্যিই এই ম্যাচের কথা এখনও মনে করতে পারি। সারাজীবন আমার তা মনে থাকবে। আমি কখনও এই কথা আগে বলিনি। তাই ভেবেছিলাম সবার সাথে তা শেয়ার করা উচিত। আমি বুঝতে পারিনি মানুষ সেটা অন্যভাবে নিয়ে নেবে।”

সাংবাদিকদের সামনে ধোনির প্রশংসাও করেন বিরাট। তিনি বলেন, “ধোনির সবথেকে ভালো ব্যাপার হল, ও সারাক্ষণ ভারতীয় ক্রিকেটের কথা ভাবে। ম্যানেজমেন্ট বা থিঙ্ক ট্যাঙ্ক যা ভাবে, ধোনিও তাই ভাবে। তরুণদের সুযোগ দেওয়া ও তাদের সঙ্গে নিজের অভিজ্ঞতা শেয়ার করার কাজ ধোনি এখনও করে যায়। ও বদলায়নি।”

Comments are closed.