শনিবার, আগস্ট ২৪

দাদা ইউসুফের জন্য ভেঙেছিল ইরফানের ১০ বছরের সম্পর্ক!

দ্য ওয়াল ব্যুরো : ভারতীয় ক্রিকেটে তুফানের মতো এসেছিলেন ইরফান পাঠান। তাঁর বা’হাতি সুইং বোলিং চমকে দিয়েছিল গোটা দুনিয়াকে। পাক কিংবদন্তী ওয়াসিম আক্রমের সঙ্গে তাঁর তুলনা শুরু করেছিলেন অনেকে। এই ইরফান পাঠান প্রেমেও পড়েন খুব অল্প বয়সে। ১০ বছর প্রেমের পরেই সেই সম্পর্ক এগোয়নি বিয়ের পিঁড়ি অবধি। দাদা ইউসুফ পাঠানের জন্যই নাকি ভেঙে যায় এই সম্পর্ক।

২০০৩ সালে অস্ট্রেলিয়া সফর চলাকালীন সেখানকার বাসিন্দা চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট শিবাঙ্গি দেবের সঙ্গে পরিচয় হয় ইরফানের। কয়েকদিনের মধ্যেই ভালো বন্ধু। তারপর প্রেম। শোনা যায়, এইসময় নাকি সুযোগ পেলেই আমেরিকা পাড়ি দিতেন বরোদা থেকে উঠে আসা এই বাঁ’হাতি বোলার। কিছুদিন পরে ভারতে আসেন শিবাঙ্গিও। বরোদায় নাকি টানা তিন বছর ছিলেন তিনি। এই সময় তাঁদের সম্পর্ক আরও গভীর হয়।

কিন্তু এরপরেই বিপত্তি। আর পাঁচটা মেয়ের মতো শিবাঙ্গিও চেয়েছিলেন বিয়ে করতে। ইরফানও রাজি ছিলেন। কিন্তু তখনও তাঁর দাদা ইউসুফের বিয়ে হয়নি। আর দাদার বিয়ে না হওয়ার জন্যই নাকি তখন বিয়ে করতে চাননি ইরফান। এই নিয়ে তাঁর সঙ্গে শিবাঙ্গির অশান্তি শুরু হয়। অবশেষে ২০১২ সালে সম্পর্ক ভেঙে যায় দুজনের।

পরবর্তীতে ইউসুফের বিয়ের পর ২০১৬ সালে বিয়ে করেন ইরফান পাঠান। সৌদি আরবে থাকা ভারতীয় মডেল সাফা বেগকে বিয়ে করেন ইরফান। জেড্ডাতে জন্ম ও বড় হয়ে ওঠা সাফার। বিয়ের পর অবশ্য ইরফানের ২১ বছর বয়সী স্ত্রী সাফা বর্তমানে একটি পাবলিক রিলেশন ফার্মের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টরের কাজ করেন।

Comments are closed.