বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৪

টেলএন্ডারদের ব্যাটে দক্ষিণ আফ্রিকার মান বাঁচলেও প্রথম ইনিংসে বিশাল লিড ভারতের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: তৃতীয় দিনের প্রথম এক ঘণ্টার খেলা দেখে মনে হচ্ছিল প্রথম ইনিংসে বিরাট ব্যবধানে লিড পাবে ভারত। দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক ফাফ দু প্লেসি আউট হওয়ার পর সেটা আরও স্পষ্ট হতে দেখা যায়। কিন্তু তারপরেই দেখা গেল দুই বোলার ফিলান্ডার ও কেশব মহারাজের লড়াই। দুজনে মিলে নবম উইকেটে ২৫৯ বল খেলে ১০৯ রানের পার্টনারশিপ গড়লেন। কিন্তু তারপরেও প্রথম ইনিংসে বড় ব্যবধানে লিড পেল ভারত।

দ্বিতীয় দিন ৩ উইকেটে ৩৬ রান থেকে খেলা শুরু হয় দক্ষিণ আফ্রিকার। শুরুতেই শামির বলে কোহলির দুরন্ত ক্যাচে আউট হন নাইট ওয়াচম্যান নর্তজে। তারপরেই ৩০ রানের মাথায় উমেশের বলে ডানদিকে সুপারম্যানের মতো ঝাঁপিয়ে ডি ব্রুইনের ক্যাচ ধরেন ঋদ্ধিমান সাহা। পাঁচ উইকেট পড়ে যাওয়ার পর পার্টনারশিপ গড়েন অধিনায়ক দু প্লেসি ও উইকেট কিপার ডি কক। লাঞ্চের ঠিক আগেই ৩১ রানের মাথায় ডি কককে বোল্ড করে দক্ষিণ আফ্রিকাকে বড় ধাক্কা দেন অশ্বিন।

অন্যদিকে নিজের হাফসেঞ্চুরি পূর্ণ করেন অধিনায়ক দু প্লেসি। যদিও তারপরেই ৬৪ রানের মাথায় অশ্বিনের ভেলকিতে আউট হন তিনি। জাদেজার বলে আউট হয়ে যান মুত্থুস্বামীও। ১৬২ রানে ৮ উইকেট পড়ে যায় প্রোটিয়াদের।

তারপরেই দেখা গেল কেশব মহারাজ ও ফিলান্ডারের লড়াই। ৪৩ ওভারের বেশি ব্যাট করলেন তাঁরা। ভারতীয় পেস ও স্পিন বোলারদের সহজেই খেলছিলেন দুজনে। সেঞ্চুরি পার্টনারশিপ গড়লেন। মহারাজ হাফসেঞ্চুরি করলেন। শেষ পর্যন্ত ৭২ রানের মাথায় অশ্বিনের বলে আউট হন মহারাজ। তারপর রাবাদাকে আউট করে দক্ষিণ আফ্রিকার ইনিংস শেষ করে দেন অশ্বিন। ফিলান্ডার ৪৪ করে অপরাজিত থাকেন। ভারতের তরফে অশ্বিন ৪ ও উমেশ যাদব ৩ উইকেট নেন।

২৭৫ রানে অলআউট হয়ে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা। তাদের ইনিংস শেষ হতেই তৃতীয় দিনের খেলা শেষ করে দেন আম্পায়ার। প্রথম ইনিংসে ৩২৬ রানের বিশাল লিড ভারতের। এখন কাল সকালে ভারত ফের ব্যাট করতে নামবে, নাকি দক্ষিণ আফ্রিকাকে ফলো অন দেবে সেটা বোঝা যাবে কাল সকালেই।

পড়ুন, দ্য ওয়ালের পুজোসংখ্যার বিশেষ লেখা…

তাহু ফল, ঐশ-রোষ ও পিগমি সমাজ

Comments are closed.