শুক্রবার, নভেম্বর ২২
TheWall
TheWall

বৃষ্টিতে শেষ প্রথম দিনের খেলা, রোহিত-রাহাণে যুগলবন্দিতে ভালো জায়গায় ভারত

দ্য ওয়াল ব্যুরো : প্রথম টেস্টের মতো শেষ টেস্টেও প্রথম দিনের খেলায় ভাগ বসালো বৃষ্টিতে। চায়ের বিরতির পর মাত্র ছ’ওভার খেলার পরেই খারাপ লাইটে বন্ধ হয় খেলা। তারপর আকাশ কালো করে এল বৃষ্টি। আম্পায়াররা সিদ্ধান্ত নেন আজকের দিনে আর খেলা শুরু করা যাবে না। তাই মাত্র ৫৮ ওভারই খেলা হল প্রথম দিন। রোহিত শর্মা ও আজিঙ্ক্যা রাহাণের পার্টনারশিপে প্রাথমিক ধাক্কা সামলে ভালো জায়গায় ভারত।

এ দিন খেলা শুরু হওয়ার পরেই দেখা যায় রাঁচির পিচে অসমান বাউন্স রয়েছে। অর্থাৎ কোনও কোনও বল বসছে। তাই রাবাদা ও এনগিডি মিলে স্টাম্প টু স্টাম্প বল করা শুরু করেন। ফলে সমস্যা হচ্ছিল ময়ঙ্ক ও রোহিতের। রাবাদার বলে খোঁচা মেরে ১০ রানের মাথায় স্লিপে ডিন এলগারের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান ময়ঙ্ক।

তিন নম্বরে নামা পূজারাকেও খুব একটা সাবলীল দেখাচ্ছিল না। রাবাদার বলেই এলবিডবলু হন তিনি। আম্পায়ার প্রথমে আউট না দিলেও রিভিউ নেয় দক্ষিণ আফ্রিকা। খাতা না খুলেই প্যাভিলিয়নে ফেরেন পূজারা। তারপর পার্টনারশিপ গড়েন অধিনায়ক বিরাট ও রোহিত।

এই সময়ে কয়েকটা বড় শট খেলেন দুজনে। কোহলি শুরু থেকেই শট খেলছিলেন। কিন্তু নর্তজের একটা বল ভিতরের দিকে ঢুকে আসে। বলের লাইন মিস করেন তিনি। ১২ রান করে এলবিডবলু হয়ে ফেরেন তিনি। ৩৯ রানে ৩ উইকেট পড়ে যায় ভারতের। তারপর পার্টনারশিপ গড়েন দুই মুম্বইকর রোহিত ও রাহাণে। লাঞ্চ পর্যন্ত ৩ উইকেটে ৭১ রান ছিল ভারতের।

লাঞ্চের বিরতির পর ব্যাট করতে নেমে পরিকল্পনায় ভুল করেন দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক দু প্লেসি। পেস বোলাররা দারুণ ছন্দে থাকলেও স্পিনার দিয়ে শুরু করেন তিনি। আর এই সুযোগটাই কাজে লাগালেন রোহিত-রাহাণে। প্রথমে কিছুক্ষণ হাত সেট করলেন। তারপর ধীরে ধীরে রানের গতি বাড়ালেন। নিজের হাফ সেঞ্চুরি পূরণ করেন রোহিত। তারপর থেকে তাঁকে নিজের চেনা ছন্দে দেখা গেল। বোলারদের সঙ্গে ছেলেখেলা করলেন হিটম্যান।

অন্যদিকে ভালো খেলছিলেন রাহাণেও। রোহিতকে যোগ্য সাথ দিলেন তিনি। নিজের হাফ সেঞ্চুরি করলেন। ৯৫ রানের মাথায় স্পিনার ড্যান পিটকে ছক্কা মেরে সেঞ্চুরি করেন রোহিত। এইভাবে ছক্কা মেরে সেঞ্চুরি করতে দেখা যেত ‘নবাব অফ নজফগড়’ বীরেন্দ্র সেহওয়াগকে। এ দিন টেস্ট ক্রিকেটে নিজের ২ হাজার রান পূর্ণ করলেন রোহিত। সেই সঙ্গে এক সিরিজে সবথেকে বেশি ছক্কা মারার রেকর্ডও করলেন হিটম্যান।

দ্বিতীয় সেশনে ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা প্রায় ৫ রান প্রতি ওভারের গতিতে স্কোর নিয়ে যান। চায়ের বিরতি পর্যন্ত ৩ উইকেটে ২০৫ রান করে ভারত। চায়ের বিরতির পরেও সাবলীল দেখাচ্ছিল দু’জনকে। নিজের সেঞ্চুরির দিকে এগোচ্ছিলেন রাহাণে। কিন্তু তারপরেই খারাপ আলোর জন্য খেলা বন্ধ হয়ে যায়। প্রথম দিনের খেলা শেষে ৩ উইকেটে ২২৪ রান ভারতের। রোহিত ১১৭ ও রাহাণে ৮৩ করে অপরাজিত আছেন।

এখন দেখার দ্বিতীয় দিন নিজেদের ও দলের রানকে কোথায় নিয়ে যান এই দুই ব্যাটসম্যান।

পড়ুন দ্য ওয়াল-এর পুজোসংখ্যার বিশেষ লেখা…

Comments are closed.