রবিবার, সেপ্টেম্বর ২২

ফের সেঞ্চুরি বিরাটের, ডাকওয়ার্থ লুইসকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে সিরিজ জয় ভারতের

দ্য ওয়াল ব্যুরো : দ্বিতীয় ওয়ান ডেতেও বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছিল বৃষ্টি। আর তারপরেই ডাকওয়ার্থ লুইস নিয়মের গেরোয় ভারতের জন্য টার্গেট দাঁড়িয়েছিল বেশ কঠিন। কিন্তু এই পরিস্থিতিই তো পছন্দ করেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি। একার কাঁধে ম্যাচ টানলেন। তাঁকে সঙ্গ দিলেন শ্রেয়স আইয়ার। ১৫ বল বাকি থাকতেই ম্যাচ জিতল ভারত। ম্যাচের তথা সিরিজের সেরা হলেন বিরাট।

এ দিন টসে জেতেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের অধিনায়ক জেসন হোল্ডার। ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন তিনি। এ দিনই নিজের একদিনের কেরিয়ারের শেষ ম্যাচ খেললেন ‘ইউনিভার্স বস’ ক্রিস গেইল। আর শেষ ম্যাচে দেখা গেল তাঁর বিধ্বংসী রূপ। গেইল ও লুইসের বিধ্বংসী ব্যাটিং মাত্র ৯ ওভারেই ১০০ রান পেরিয়ে যায় ক্যারিবিয়ান দল। দেখে মনে হচ্ছিল, দুই ওপেনার শেষ করে দেবেন ভারতকে। কিন্তু লুইস ২৯ বলে ৪৩ ও গেইল ৪১ বলে ৭২ করে আউট হওয়ার পর রানের গতি কিছুটা কমে।

মাঝে বৃষ্টির জন্য খেলা বেশ খানিকক্ষণ বন্ধ থাকে। ওভার কমে দাঁড়ায় ৩৫। ফের ব্যাট করতে নেমে ৩৫ ওভারে ৭ উইকেটে ২৪০ তোলে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। কিন্তু ডাকওয়ার্থ লুইস নিয়মে ভারতের টার্গেট দাঁড়ায় ২৫৫।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ১০ রানে রান আউট হন রোহিত। ধাওয়ান ও কোহলি পার্টনারশিপ গড়েন। ধাওয়ান ৩৬ করে আউট হওয়ার পরেই মাত্র শূণ্য রানে প্যাভিলিয়নে ফেরেন পন্থও। তারপর পার্টনারশিপ গড়েন কোহলি ও শ্রেয়স আইয়ার। দু’জনে সাবলীল খেলা খেলতে থাকনে। আগের দিনের পর এ দিনও সেঞ্চুরি করলেন কোহলি। নিজের ৪৩ নম্বর সেঞ্চুরির সঙ্গে শেষ পর্যন্ত অপরাজিত থাকেন তিনি। আইয়ার ৪১ বলে ৬৫ করে আউট হন।

শেষ পর্যন্ত ৩২.৩ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ২৫৬ তোলে ভারত। বিরাট ১১৪ ও কেদার ১৯ করে নট আউট থাকেন। ফলে ২-০ ব্যবধানে সিরিজ জিতে ওয়ান ডেও পকেটে এল বিরাটদের। এখনও অবধি ঘরের মাঠে একটাও ম্যাচ জিততে পারেনি জেসন হোল্ডারের টিম। এ বার টেস্ট সিরিজ জিতে ষোলোকলা পূর্ণ করতে চাইবে ভারত।

Comments are closed.