রবিবার, সেপ্টেম্বর ২২

বুমরাহ-ইশান্ত-শামির ত্রিফলা আক্রমণে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে উড়িয়ে বিরাট জয় ভারতের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: মাত্র ২৬.৫ ওভার লাগলো চতুর্থ ইনিংসে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে অলআউট করতে। তাও শেষ উইকেট কিমার রোচ ও কামিংস ৫০ রানের পার্টনারশিপ না গড়লে অনেক আগেই জিতে যেত ভারত। ১০ উইকেটই নিলেন ভারতের পেস বোলাররা। ৩১৮ রানের বিশাল ব্যবধানে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ শুরু করল ভারত।

ব্যাট হাতে যদি ভারতের নায়ক হন বিরাটের ডেপুটি রাহানে, তাহলে বল হাতে আগুন ঝরালেন ভারতের পেস ত্রয়ী। তাঁদের সুইংয়ের কোনও জবাব ছিল না ক্যারিবিয়ান ব্যাটসম্যানদের কাছে। প্রথম ইনিংসে তাও কিছুটা রান করলেও দ্বিতীয় ইনিংসে দাঁড়াতেই পারলেন না হোল্ডার অ্যান্ড কোম্পানি।

টসে জিতে প্রথমে ভারতকে ব্যাট করতে পাঠান অধিনায়ক হোল্ডার। লোকেশ রাহুল ৪৪ করলেও ভারতের টপ অর্ডার ব্যর্থ হয়। কিন্তু রাহানে ও জাদেজার হাত ধরে ২৯৭ করে তারা। রাহানে ৮১ ও জাদেজা ৫৭ করেন। ক্যারিবিয়ান পেসার কিমার রোচ ৪ উইকেট নেন।

জবাবে প্রথম ইনিংসে বেশি রান তুলতে পারেনি ওয়েস্ট ইন্ডিজও। চেজ ৪৮, হেটমায়ের ৩৫ ও হোল্ডারের ৩৯ রানের দৌলতে ২২২ রানে অলআউট হয়ে যায় তারা। ভারতের হয়ে ইশান্ত শর্মা ৫ এবং শামি ও জাদেজা ২টি করে উইকেট নেন।

ভারতের দ্বিতীয় ইনিংসে ফের নিজেকে মেলে ধরলেন রাহানে। অধিনায়ক কোহলি ৫১ করে আউট হলেও রাহানে সেঞ্চুরি করেন। তিনি ১০২ করে আউট হলেও খেলা চালিয়ে যান হনুমা বিহারী। নিজের প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরি থেকে মাত্র ৭ রান আগে আউট হন তিনি। বিহারী আউট হতেই ৭ উইকেটে ৩৪৩ রানে ডিক্লেয়ার করে ভারত। ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে চেজ দ্বিতীয় ইনিংসে ৪ উইকেট নেন।

জয়ের জন্য ৪১৯ রানের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে খেলতে নেমে তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে ক্যারিবিয়ান টপ অর্ডার। বুমরাহর সামনে দাঁড়াতে পারেননি কেউ। একটা সময় ৫০ রানে ৯ উইকেট পড়ে যায় তাদের। কিন্তু শেষ উইকেটে ৫০ রান যোগ করেন রোচ ও কামিংস। শেষ পর্যন্ত ১০০ রানে অলআউট হয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। রোচ ৩৮ করে আউট হন। ভারতের হয়ে বুমরাহ মাত্র ৭ রান দিয়ে ৫ উইকেট নেন। ইশান্ত ৩ ও শামি ২ উইকেট নেন। ৩১৮ রানে ম্যাচ জেতে ভারত।

এই জয়ের ফলে অধিনায়ক হিসেবে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে ছাপিয়ে গেলেন কোহলি। এর আগে সৌরভ অধিনায়ক হিসেবে বিদেশের মাটিতে ২৮ টেস্টে ১১ জয় পেয়েছিলেন। ২৬ টেস্টে ১২ জয় পেয়ে তাঁকে টপকালেন বিরাট। এখন দেখার টি ২০ ও ওয়ান ডে সিরিজের মতো টেস্ট সিরিজও ভারত নিজের পকেটে করতে পারে কিনা।

Comments are closed.