শুক্রবার, ডিসেম্বর ১৪

গোলই চেনেন না ফরওয়ার্ডরা, হেরেই চলেছে ইস্টবেঙ্গল

দ্য ওয়াল ব্যুরো: মঙ্গলবার সকালে ঘুম থেকে উঠেই খারাপ খবরটা পেয়েছিলেন লাল-হলুদ সমর্থকরা। ক্যান্সার আক্রান্ত তরুণী ইস্টবেঙ্গল সমর্থক ঊষশ্রী চক্রবর্তীর মৃত্যুর খবর লাল-হলুদ সমর্থকদের মধ্যে চাউর হওয়ার পর অনেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছিলেন, আজকের ম্যাচটা জিতে ঊষশ্রীকে উৎসর্গ করবেন তাঁরা। কিন্তু হলো না। পরপর তিনটি ম্যাচ হেরে গেল ইস্টবেঙ্গল।

শহরে পা রেখেই মিনার্ভা কর্তা রঞ্জিত বাজাজ স্বভাবসিদ্ধ ঢঙে গরম গরম কথা বলেছিলেন ইস্টবেঙ্গলের বিরুদ্ধে। তাতছিলেন সমর্থকরাও। যাদের কাজের কাজটা করার কথা সেই খেলোয়াড়রাই তাতলেন না। গতবারের চ্যাম্পিয়নদের কাছে ১-০ গোলে হেরে গেল ইস্টবেঙ্গল। যার ফলে পাঁচ ম্যাচে ইস্টবেঙ্গলের পয়েন্ট দাঁড়াল ৬। প্রথম দু’টি অ্যাওয়ে ম্যাচ থেকে ছাঁকা ছ’পয়েন্ট পেয়েছিল স্প্যানিশ কোচের ইস্টবেঙ্গল। তারপর পরপর ৩ ম্যাচেই হেরে গেল স্প্যানিশ কোচ আলেজান্দ্রো মেনেন্ডেজের ছেলেরা। যার মধ্যে আবার দুটি ম্যাচ ঘরের মাঠে।

এমনিতেই মহমুদ আল আমনা চোটের কারণে মাঝ মাঠে নেই। আর প্রতি ম্যাচে তা যেন বারবার করুণভাবে ভেসে উঠছে। কমলপ্রীতরা যেন জানেনই না কী ভাবে মাঝমাঠে বল ধরে উইং দিয়ে খেলা তৈরি করতে হয়। তেমনই কাশিম আইদারা। যাও বা ব্র্যান্ডন, ইয়ামি লংভারা একটু চেষ্টা করছিলেন, কিন্তু গোল করবে কে? মেক্সিকান স্ট্রাইকার এনরিকেকে দেখে অনেকেই বলছেন, শুরুটা যেভাবে করেছিলেন, সেটা আর রইল কই! স্ট্রাইকার বলতে প্রতিপক্ষের বক্সে জবি জাস্টিন যা-ও বা একটু ছটফট করলেন কিন্তু গোল মুখ খুলতে পারলেন না।

উলটো দিকে মিনার্ভা পরিকল্পিত ফুটবল খেলে ৭৭ মিনিটে একমাত্র গোল তুলে নিল। সেই সঙ্গে অ্যাওয়ে ম্যাচ থেকে পুরো পয়েন্ট। ইস্টবেঙ্গল ডিফেন্স আর গোলরক্ষক উবেইদকে বোকা বানিয়ে মিনার্ভার হয়ে একমাত্র গোলটি করেন বিদেশি ওপোকু উইলিয়াম।

ইস্টবেঙ্গলের সুযোগ বলতে ৬২ মিনিটে মেক্সিকান এনরিকের গোলার মতো শট সেভ করে দেন মিনার্ভার গোলরক্ষক। এতটাই বিরক্তিকর ফুটবল তাঁর, যে কোচও ৮০ মিনিটের মাথায় তাঁকে বসিয়ে নামিয়ে দেন বিদ্যাসাগর সিং-কে। খেলার শেষ মিনিটে পরিবর্ত হিসেবে নামা সামাদ আলি মল্লিকের দুরন্ত ক্রস থেকে শূন্যে শরীর ছুড়ে দিয়ে হেড করেন কেরলের ভূমিপুত্র জবি জাস্টিন। ততোধিক ক্ষিপ্রতায় সেই হেডার রুখে দেন মিনার্ভার তেকাঠির নীচে দাঁড়ানো প্রহরী।

যদিও আই লিগ ম্যারাথন লিগ। এখনও অনেক ম্যাচ বাকি। পয়েন্ট টেবিলেও বদল হবে অনেক। কিন্তু অতি বড় ইস্টবেঙ্গল সমর্থকরাও যুবভারতীর গ্যালারিতে টিমের ভবিষ্যৎ নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেই ফেললেন!

Shares

Comments are closed.