শুক্রবার, ডিসেম্বর ১৪

হারের হ্যাট্রিক, খেলোয়াড়দের হাতে লাল গোলাপ দিয়ে গান্ধীগিরি ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের

দ্য ওয়াল ব্যুরোপর পর তিন ম্যাচে হার। তার মধ্যে আবার দুটো ঘরের মাঠে। ক্ষোভ বাড়ছিলই ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের মধ্যে। কিন্তু তার বহিঃপ্রকাশ হলো একেবারে অন্য কায়দায়। প্লেয়ারদের ‘শিক্ষা’ দিতে বৃহস্পতিবার অনুশীলন শেষে খেলোয়াড়দের হাতে লাল গোলাপ ধরিয়ে দিলেন কয়েকজন সমর্থক।

এ দিনের অনুশীলনে এসেছিলেন গতকাল রাতে বিমানবন্দরে নামা ইস্টবেঙ্গলের নতুন বিদেশি স্যান্টোসও। উপস্থিত সমর্থকরা মুখে বলেন, দলের খেলোয়াড়দের উদ্বুদ্ধ করতেই তাঁদের এই গোলাপ দেওয়া। যদিও বিদ্রুপ করতেই সমর্থকদের যে এই গান্ধীগিরি, তাঁদের শরীরী ভাষায় কারও তা বুঝতে খুব একটা অসুবিধে হওয়ার কথা নয়। এক সমর্থক তো বলেই ফেললেন, “এখন সময় বদলেছে। সত্তরের দশকের মতো আর পেটানো যায় না! এখন গান্ধীগিরি হয়।”

আরও পড়ুন ‘সব ছক কষা ছিল’! নিক-প্রিয়াঙ্কার বিয়ে নিয়ে বিস্ফোরক অভিযোগ

১৫ বছর আই লিগ জেতেনি ইস্টবেঙ্গল। তার মধ্যে এ বার নতুন স্পন্সর পেয়ে স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছিলেন লাল-হলুদ সমর্থকরা। আই লিগের শুরুটায় সেই স্বপ্নে কিছুটা হাওয়াও লেগেছিল। প্রথম দুটি ম্যাচ থেকে ছাঁকা ছ’পয়েন্ট তুলে এনেছিলেন আলেজান্দ্রো মেনেন্ডেজের ছেলেরা। কিন্তু তারপর থেকেই শুরু হোঁচট খাওয়া। ঘরের মাঠে চেন্নাই সিটি এফসি এবং মিনার্ভার কাছে হার এবং পাহাড়ে গিয়ে আইজলের কাছে হেরে লিগ টেবিলে অনেকটাই নীচের দিকে কোয়েস ইস্টবেঙ্গল। অনেক সমর্থকই আশা ছেড়েছেন। আবার অনেকে বলছেন, এখনও সুযোগ রয়েছে। আইলিগ ম্যারাথন লিগ। শেষ রাউন্ডে গিয়ে যে পয়েন্ট টেবিলে অনেক বদল আসে তা গত কয়েক বছরে একাধিকবার দেখা গিয়েছে।

ইতিমধ্যেই খেলোয়াড়দের আচরণ নিয়ে নানান প্রশ্ন উঠে গিয়েছে। বুধবার তো প্রায় সারাদিন সোশ্যাল মিডিয়ায় লাল-হলুদ সমর্থকরা ব্যস্ত ছিলেন মিনার্ভার কাছে হারের পর ইস্টবেঙ্গল খেলোয়াড় চুলোভার একটি ভিডিও চ্যাটের স্ক্রিন শট নিয়ে আলোচনায়। তাঁদের বক্তব্য সমর্থকরা আবেগ নিয়ে মাঠ ভরায় আর খেলোয়াড়দের কোনও দায়বদ্ধতাই নেই। এ দিন সমর্থকদের অহিংস আচরণ দেখার পর অনেকে আবার এ-ও বলছেন, কতদিন গান্ধীগিরি থাকে এখন সেটাই দেখার! 

The Wall-এর ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন 

Shares

Comments are closed.