রবিবার, জুন ১৬

কবিতা লিখলেন ধাওয়ান, মাঠে ফেরার ইঙ্গিত কি!

দ্য ওয়াল ব্যুরো: মঙ্গলবার সকালে জানা গিয়েছিল বুড়ো আঙুলের হাড়ে চিড় ধরায় তিন সপ্তাহ বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গিয়েছেন শিখর ধাওয়ান। ভারতীয় সমর্থকদের আশঙ্কার মধ্যে জল্পনা শুরু হয়, তবে কি গোটা বিশ্বকাপেই খেলতে পারবেন না তিনি! তারপর বিসিসিআইয়ের তরফে জানানো হয়, তিন নয়, দু’সপ্তাহ মাঠের বাইরে থাকতে হবে ধাওয়ানকে। তাঁকে মাঠে ফেরানোর চেষ্টা হচ্ছে। আপাতত তিনি ইংল্যান্ডেই থাকছেন। আর এই আবহে বুধবার সকালে কবিতা লিখলেন গব্বর। এমনকী দলের সঙ্গে প্র্যাকটিসেও দেখা গিয়েছে তাঁকে।

বুধবার সকালে নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে ধাওয়ান হিন্দি ভাষায় একটি কবিতা লেখেন। কবিতাটি হলো, “কভি মেহেক কী তরাহ হাম গুলোঁ সে উড়তে হ্যায়….কভি ধুয়েঁ কী তরাহ হাম পর্বতোঁ সে উড়তে হ্যায়…..ইয়ে ক্যাইচিয়াঁ হামে উড়নে সে খাক রোকেঙ্গি….কে হাম পরোঁ সে নহি হসলোঁ সে উড়তে হ্যায়….”

এই লাইনগুলির মানে হলো, “কখনও আমরা ফুলের সুগন্ধের মতো….কখনও আমরা পর্বত থেকে ওঠা ধোঁয়ার মতো…কেমন করে কাঁচি আমাদের উড়ান বন্ধ করতে পারে…কারন আমরা ডানা দিয়ে নয় মনের সাহস দিয়ে উড়ি….”

ধাওয়ানের এই কবিতার পরেই জল্পনা শুরু হয়েছে ভারতীয় সমর্থকদের মধ্যে। তবে কি নিজের মাঠে ফেরার ইঙ্গিত দিচ্ছেন গব্বর। কোনও কিছুই উড়ান বন্ধ করতে পারবে না বলতে কি আঙুলে লাগা চোটের কথা বললেন ধাওয়ান। সেই চোট সারিয়ে তিনি মাঠে ফিরবেন, এই ইঙ্গিতই কি দিলেন শিখর।

এ দিন অবশ্য দেখা যায়, ভারতীয় দলের সঙ্গে প্র্যাকটিসেও নেমেছেন ধাওয়ান। সকালে দেখা যায়, ধাওয়ান নিজের কিট নিয়ে মাঠে নামছেন। তারপর দেখা যায় দলের সঙ্গে সামান্য অনুশীলনও করেন গব্বর। যদিও তাঁর ডান হাতের আঙুলে ব্যান্ডেজ প্লাস্টার করা ছিল। তবে তার মধ্যেও শিখরের অনুশীলনে নামা ভালো ইঙ্গিত ভারতের জন্য।

Comments are closed.