বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৪

ফের হার সেরেনার, ইউএস ওপেন জিতে রেকর্ড গড়লেন ১৯-এর বিয়াঙ্কা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: লাগাতার চার গ্র্যান্ড স্ল্যামের ফাইনালে উঠে হারতে হলো সেরেনা উইলিয়ামসকে। রেকর্ড এ বারও অধরা থেকে গেল তাঁর। ইউএস ওপেনের ফাইনালে অনামী কানাডিয়ান তরুণী বিয়াঙ্কা অ্যান্দ্রেস্কুর কাছে স্ট্রেট সেটে হারলেন সেরেনা। রেকর্ড গড়লেন বিয়াঙ্কা। সর্বকণিষ্ঠ হিসেবে গ্র্যান্ড স্ল্যাম জিতলেন তিনি। ভাঙলেন ২০০৬ ইউএস ওপেনের ফাইনালে মারিয়া শারাপোভার রেকর্ড।

ইউএস ওপেনের ফাইনালে সেরেনার প্রতিপক্ষ হিসেবে বিয়াঙ্কার নাম দেখে প্রায় সবাই ধরেই নিয়েছিলেন এ বার নিজের কেরিয়ারের ২৪ তম গ্র্যান্ড স্ল্যাম পেয়ে যাবেন সেরেনা। ছুঁয়ে ফেলবেন কিংবদন্তী মার্গারেট কোর্টকে। কিন্তু সবাইকে অবাক করে দিলেন বিয়াঙ্কা। আগের দু’বছর ইউএস ওপেনের মূলপর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জনই করতে পারেননি এই তরুণী। কিন্তু এ বার সবাইকে চমকে দেন তিনি। ফাইনালেও বাজি মারলেন বিয়াঙ্কা।

এ দিন স্ট্রেট সেটে ৬-৩, ৭-৫ ব্যবধানে সেরেনাকে হারান বিয়াঙ্কা। কানাডিয়ান তরুণী বিয়ঙ্কার লম্বা র‍্যালি ও দমের বিরুদ্ধেই হারতে হলো ৩৭ বছরের সেরেনা উইলিয়ামসকে। অথচ এই সেরেনা যখন তাঁর ১৯৯৯ ইউএস ওপেনে জীবনের প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যাম জিতেছিলেন, তখন জন্মই হয়নি বিয়াঙ্কার।

আগের বার ফ্ল্যাশিং মিডোতে জাপানের নাওমি ওসাকার কাছে হারতে হয়েছিল সেরেনাকে। এর আগেই উইম্বলডন ফাইনালে রোমানিয়ার সিমোন হালেপের কাছে হারতে হয়েছিল সেরেনাকে। সে বারও দেখা গিয়েছিল বয়সের ভারেই হারতে হচ্ছে এই আমেরিকান চ্যাম্পিয়নকে। এ বারও সেই একই হাল হলো সেরেনার।

এ দিন অবশ্য হারের পর হতাশ হতে দেখা যায়নি সেরেনাকে। বরং বিয়াঙ্কাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তিনি। সেরেনা আরও বলেছেন, তিনি এখনও ভালো ফর্মেই রয়েছেন। তাঁর শারীরিক হাল ঠিকঠাক। এখনও বেশ কিছুদিন টেনিস খেলবেন তিনি। সেরেনা ভক্তরাও আশা করছেন পরের গ্র্যান্ড স্ল্যামেই হয়রতো রেকর্ড ছুঁয়ে ফেলবেন সেরেনা।

Comments are closed.