বৃহস্পতিবার, জুন ২০

হ্যাপি বার্থ’ডে ‘দ্য ওয়াল’, তোমার বিরাট বড় মন

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ভারতীয় ক্রিকেটের ‘দ্য ওয়াল’। খেলোয়াড় জীবনে বিপক্ষ বোলারদের সামনে দাঁড়িয়ে থেকেছেন দেওয়াল হয়ে। মুখ নয়, বরাবর ব্যাটেই জবাব দিয়েছেন। অবসর নেওয়ার সাত বছর পরেও তাঁকে নিয়ে আবেগ কমেনি। রাহুল দ্রাবিড়ের ৪৬ তম জন্মদিনে দেখা গেল সেই ছবি।

শুক্রবার ৪৭-এ পা দিলেন রাহুল দ্রাবিড়। বৃহস্পতিবার রাত ১২টার পর থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভেসে এসেছে একের পর এক শুভেচ্ছা বার্তা। ক্রিকেট দুনিয়া থেকে শুরু করে আম জনতা, সবাই শুভেচ্ছা জানিয়েছেন জনপ্রিয় এই ক্রিকেটারকে। সেই তালিকায় রয়েছেন প্রাক্তন ক্রিকেটার বীরেন্দ্র সেহওয়াগও। সেহওয়াগের টুইট করার ধরণ বরাবর সবার থেকে একটু আলাদা। তাঁর সব টুইটেই দেখা যায় ‘সেন্স অফ হিউমারের’ ঝলক।

আরও পড়ুন আশঙ্কা ছিলই, অ্যাক্সিডেন্টাল নয়, কংগ্রেসের বিক্ষোভে কলকাতায় বন্ধ ফার্স্ট ডে ফার্স্ট শো

রাহুল দ্রাবিড়ের জন্মদিন উপলক্ষ্যে টুইট করে সেহওয়াগ লেখেন, “দেওয়ালের কান থাকে। কিন্তু এই দেওয়ালের খুব পবিত্র মন ও হৃদয়ও আছে।” তারসঙ্গে তিনি লেখেন, “তাঁর সঙ্গে খেলতে পারা সত্যিই গর্বের। তাঁর সঙ্গে কাটানো প্রতিটা মুহূর্ত খুব আনন্দের।”

সেহওয়াগের এই টুইটের পর থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় আসতে থাকে প্রচুর কমেন্ট। কেউ বলেন, সত্যি সেহওয়াগের সেন্স অফ হিউমার অতুলনীয়। কেউ বলেন, দ্রাবিড়কে এক লাইনে এর থেকে সুন্দর করে কেউ বোঝাতে পারবেন না। কেউ আবার বলেন, সেহওয়াগের এই শুভেচ্ছা বার্তা সবথেকে সুন্দর।

এইসব কমেন্টের পর ফের আরও একটি টুইট করেন সেহওয়াগ। তিনি লেখেন, “তিনি সবসময় ভি’এর মধ্যে খেলতেন। কিন্তু তাঁর সবথেকে বড় ‘সি’ হলো কমিটমেন্ট, ক্লাস, কনসিস্টেন্সি, কেয়ার। তাঁর সঙ্গে খেলতে পেরে খুব আনন্দিত। শুভ জন্মদিন দ্রাবিড়।”

তবে শুধু সেহওয়াগই নন, বিভিন্ন মহল থেকে শুভেচ্ছা এসেছে দ্রাবিড়ের উদ্দেশে। এইসব শুভেচ্ছা বলে দিচ্ছে, খেলা ছাড়ার এতদিন পরেও ভারতীয়দের মধ্যে কতটা জনপ্রিয় তিনি।

২০১২ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন রাহুল। কিন্তু ক্রিকেট তাঁকে ছেড়ে যায়নি। আর তার ফলেই খেলা ছেড়ে দেওয়ার পরেও ইন্ডিয়া এ ও অনূর্ধ্ব ১৯ দলের কোচের দায়িত্ব নিয়েছেন। তাঁর কোচিংয়েই পৃথ্বী শ’র নেতৃত্বে ভারতীয় দল অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপ জিতেছে। খেলোয়াড় হিসেবে বিশ্বকাপ জেতার কৃতিত্ব না থাকলেও কোচ হিসেবে তুলেছেন বিশ্বকাপ।

শুধু খেলোয়াড় হিসেবেই নয়, মানুষ হিসেবেও তিনি ছিলেন সবার খুব পছন্দের। জেন্টলম্যানস গেমের প্রকৃত জেন্টলম্যান বলতে যা বোঝায়, সেটাই ছিলেন দ্রাবিড়। কোনও দিন কারও বিরুদ্ধে কথা বলেননি। কোনও বিতর্ক হয়নি তাঁকে নিয়ে। সবার সব উত্তর দিয়েছেন ব্যাটে। বাইশ গজে। আর তাই খেলা ছেড়ে দেওয়ার এতদিন পরেও সমান জনপ্রিয় ভারতীয় ক্রিকেটের ‘দ্য ওয়াল।’

The Wall-এর ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন 

Comments are closed.