মঙ্গলবার, নভেম্বর ১২

খেলা চলাকালীন কাশ্মীর নিয়ে ভারত-বিরোধী স্লোগান, আইসিসির কাছে অভিযোগ বিসিসিআই-এর

  • 32
  •  
  •  
    32
    Shares

দ্য ওয়াল ব্যুরো: পাকিস্তান-আফগানিস্তান ম্যাচে মাঠের উপর দিয়ে উড়ে যাওয়া বিমানে স্লোগান লেখা ছিল বালুচিস্তানকে নিয়ে। আর এই স্লোগানকে কেন্দ্র করেই মাঠের বাইরে হাতাহাতিতে জড়ান দু’দেশের সমর্থকরা। এ বার ভারত-শ্রীলঙ্কা ম্যাচেও ঘটল একই ঘটনা। তাও একবার নয়, তিনবার। মাঠের উপর দিয়ে উড়ে যাওয়া বিমানে দেখা গেল কাশ্মীর নিয়ে ভারত-বিরোধী মন্তব্য। আর এই ঘটনার পরেই আইসিসির কাছে অভিযোগ জানিয়েছে বিসিসিআই।

শনিবার যেখন শ্রীলঙ্কা ব্যাট করছিল, তখন দেখা যায় মাঠের উপর দিয়ে উড়ে যাচ্ছে একটা বিমান। তাতে লেখা, ‘জাস্টিস ফর কাশ্মীর।’ কিছুক্ষণ পর ফের একটি বিমান উড়ে যায়। সেখানে লেখা, ‘গণহত্যা বন্ধ হোক, কাশ্মীর স্বাধীন হোক।’ দ্বিতীয়ার্ধে যখন ভারত ব্যাট করছে, তখন ফের এই ঘটনার পুনরাবৃত্তি। এ বার বিমানে লেখা ছিল, ‘গণহত্যা বন্ধ করতে সাহায্য করুন।’

আর এই তিনটে ঘটনার পরই বিসিসিআইয়ের তরফে লিখিতভাবে অভিযোগ করা হয়েছে আইসিসির কাছে। বোর্ডের এক কর্তা জানিয়েছেন, “এই ঘটনা কোনওভাবেই বরদাস্ত করা যায় না। আমরা আমাদের চিন্তার কথা তুলে আইসিসির কাছে অভিযোগ জানিয়েছি। হেডিংলিতে যা হলো, সেই ঘটনা ফের সেমিফাইনালে হলে তা খুব খারাপ হবে। আমাদের কাছে সবথেকে গুরুত্ত্বপূর্ণ ক্রিকেটারদের সুরক্ষা।”

সূত্রে খবর, এই ঘটনায় আইসিসিও যথেষ্ট বিরক্ত। এ বারের বিশ্বকাপে কোনও ধরণের ধর্মীয় বা রাজনৈতিক স্লোগানের ক্ষেত্রে জিরো টলারেন্স নীতি নিয়েছে তারা। তারপরেও এই ঘটনা ঘটেছে। আইসিসির তরফে একটা বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “আমরা এই ঘটনার জন্য খুব দুঃখিত। আমরা কোনও ধরণের রাজনৈতিক বার্তাকে সমর্থন করি না।” ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ামক সংস্থার তরফে আরও বলা হয়েছে, “গোটা টুর্নামেন্ট ধরে স্থানীয় পুলিশের সঙ্গে আমরা কাজ করেছি, যাতে কোথাও এই ধরণের ঘটনা না ঘটে। পাকিস্তান-আফগানিস্তান ম্যাচের পর ইস্ট ইয়র্কশায়ারের পুলিশ আমাদের জানিয়েছিল, এই ধরণের ঘটনা আর ঘটবে না। কিন্তু তা ফের ঘটায় আমরা খুব বিরক্ত।”

উত্তর ইংল্যান্ডের ইয়র্কশায়ারের বাসিন্দাদের একটা বড় অংশ পাকিস্তানি। আর তাই ম্যাচ চলাকালীন এই ধরণের ঘটনা ঘটল বলে মনে করা হচ্ছে।

তবে সেমিফাইনালে যাতে এই ঘটনা না ঘটে, তার জন্য মঙ্গলবার ম্যাঞ্চেস্টার ও বৃহস্পতিবার এজবাস্টনকে নো ফ্লায়িং জোন বলে চিহ্নিত করা হয়েছে বলে খবর। ম্যাঞ্চেস্টার ও ইয়র্কশায়ার পুলিশের তরফ থেকেও আইসিসিকে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে যে এই ধরণের ঘটনা আর ঘটবে না।

Comments are closed.