বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ২৩
TheWall
TheWall

লজ্জার হার কোহলিদের, ওয়ার্নার-ফিঞ্চের সেঞ্চুরিতে ১০ উইকেটে জয় অস্ট্রেলিয়ার

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

দ্য ওয়াল ব্যুরো: প্রথম ম্যাচেই মুখ থুবড়ে পড়লেন কোহলিরা। অস্ট্রেলিয়ার কাছে গো-হারা হার দিয়েই শুরু হল একদিনের সিরিজ। ব্যাটিং, বোলিং দু’ক্ষেত্রেই প্রকাশ পেয়ে গেল ভারতের দুর্বলতা। প্রথম ম্যাচেই ওয়ার্নার-ফিঞ্চ বুঝিয়ে দিলেন সিরিজ জেতার মানসিকতা নিয়েই ভারতে পা দিয়েছেন তাঁরা।

এদিন টসে জিতে প্রথমে বল করার সিদ্ধান্ত নেন অজি অধিনায়ক ফিঞ্চ। এই ম্যাচে অনেক দিন পরে ভারতের ওপেনিং জুটিতে ফিরেছিলেন রোহিত শর্মা ও লোকেশ রাহুল। কিন্তু পুরনো ফর্মে ফিরতে পারলেন না তাঁরা। মাত্র ১০ রান করে স্টার্কের বলে আউট হন রোহিত। তারপর পার্টনারশিপ গড়েন ধাওয়ান ও রাহুল। টি ২০ সিরিজের ফর্মই এগিয়ে নিয়ে যেতে থাকেন তাঁরা। ধাওয়ান নিজের হাফসেঞ্চুরি পূর্ণ করেন। ১২১ রানের পার্টনারশিপ গড়েন দু’জনে।

তারপরেই জোড়া ধাক্কা লাগে ভারতীয় ব্যাটিংয়ে। মাত্র ৬ রানের মধ্যে আউট হয়ে যান দু’জনে। রাহুল ৪৭ ও ধাওয়ান ৭৪ করে আউট হন। দুই সেট ব্যাটসম্যান আউট হতেই চাপে পড়ে যায় ভারত। চার নম্বরে নামা কোহলি বিশেষ কিছু করতে পারেননি। জাম্পাকে ছক্কা মারার পরের বলেই তাঁর হাতে ক্যাচ দিয়ে ১৬ রানের মাথায় ফিরে যান বিরাট। ডিপেন্ডেবল শ্রেয়স আইয়ারও ৪ রানের মাথায় স্টার্কের শিকার হন।

পাঁচ উইকেট পড়ে যাওয়ার পর কিছুটা ধরে খেলার চেষ্টা করেন ঋষভ পন্থ ও রবীন্দ্র জাদেজা। দলের রানকে ২০০ পার করেন তাঁরা। কিন্তু তারপরেই ফের জোড়া ধাক্কা খায় ভারত। প্রথমে ২৫ রানের মাথায় জাদেজা ও তারপর ২৮ রানের মাথায় পন্থ আউট হন। তারপরেও কিছুটা প্রতিরোধ গড়লেন ভারতের টেলএন্ডাররা। শার্দুল ঠাকুর ১৩, কুলদীপ যাদব ১৭ করেন। ৫০ তম ওভারের প্রথম বলেই ১০ রানের মাথায় শামি আউট হতেই ২৫৫ রানে শেষ হয়ে যায় ভারতের ইনিংস। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে স্টার্ক ৩টি, কামিংস ও রিচার্ডসন ২টি করে এবং জাম্পা ও অ্যাগার ১টি করে উইকেট নেন।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকে আগ্রাসী ক্রিকেট খেলা শুরু করেন অস্ট্রেলিয়ার দুই ওপেনার ওয়ার্নার ও অধিনায়ক ফিঞ্চ। শিশিরের ফলে পরে বল করার ক্ষেত্রে যে সমস্যার আশঙ্কা করা হয়েছিল, সেটাই দেখা গেল। কোনও বোলার সুইং পেলেন না। স্পিনারদের বল ঠিক জায়গায় পড়ল না। তার সুবিধা দু’হাতে তুললেন ওয়ার্নার ও ফিঞ্চ।

প্রথম থেকেই রান তোলার গতি ছয়ের বেশি ছিল। শুরু থেকেই মারছিলেন ফিঞ্চ। ওয়ার্নার শুরুতে একটু ধরে খেললেও হাত সেট হওয়ার পরে ভয়ঙ্কর হয়ে উঠলেন। সেই পুরনো ওয়ার্নারকে দেখা গেল। ভারত তথা বিশ্বের এক নম্বর বোলার বুমরাহও তাঁর সামনে কিছু করতে পারলেন না। ভারতের কোনও বোলারকেই রেয়াত করলেন না তাঁরা। কোহলির কোনও তাসই কাজে এল না।

প্রথমে নিজের ১৮তম সেঞ্চুরি পূর্ণ করলেন ওয়ার্নার। তার পিছনে নিজের ১৬তম সেঞ্চুরিতে পৌঁছলেন ফিঞ্চও। শেষ পর্যন্ত মাত্র ৩৭.৪ ওভারে জয়ের রান তুলে নিল অস্ট্রেলিয়া। ওয়ার্নার ১২৮ ও ফিঞ্চ ১১০ রান করে অপরাজিত থাকেন। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ভারতের বিরুদ্ধে সেরা ওপেনিং পার্টনারশিপ হল এদিন। একটাও উইকেট ফেলতে পারলেন না শামি, বুমরাহ, কুলদীপরা। ১০ উইকেটে লজ্জার হার হল ভারতের।

এরপর শুক্রবার রাজকোটে দ্বিতীয় একদিনের ম্যাচে মুখোমুখি হবে দু’দল। তিন ম্যাচের সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল অস্ট্রেলিয়া। এখন দেখার রাজকোটে বিরাটরা ফিরে আসতে পারেন কিনা।

Share.

Comments are closed.