বুধবার, নভেম্বর ১৩

চিলিকে হারিয়ে থার্ড বয় আর্জেন্টিনা, লাল কার্ড দেখে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ তুললেন মেসি

দ্য ওয়াল ব্যুরো: আগের দু’ বারের কোপাতে ফাইনাল খেলেছিল দুই দল। কিন্তু এ বার সেমিফাইনালের হারতে হয়েছে। আর তাই তৃতীয় স্থান নির্ণায়ক ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল আর্জেন্টিনা-চিলি। সেই ম্যাচে চিলিকে হারালেও বিতর্ক পিছু ছাড়ল না আলবিসেলেস্তেদের। ম্যাচে লাল কার্ড দেখলেন মেসি। আর এই লাল কার্ডের পর থেকেই শুরু হয়েছে বিতর্ক।

এ দিন ম্যাচের ১২ মিনিটে সের্জিও অ্যাগুয়েরোর করা গোলে এগিয়ে যায় আর্জেন্টিনা। মেসির পাস ধরে ঠান্ডা মাথায় গোল করেন তিনি। ২২ মিনিটে জিওভানির পাস থেকে ব্যবধান বাড়ান তরুণ দিবালা।

কিন্তু তারপরেই ছন্দপতন। ৩৭ মিনিটের মাথায় মেসিকে জঘন্য ফাউল করেন চিলির ডিফেন্ডার গ্যারি মেডেল। তা নিয়ে চিলির ডিফেন্ডারদের সঙ্গে উত্তপ্ত বাক্যবিনিময়ে জড়িয়ে পড়েন মেসি। রেফারি এসে মেসি ও মেডেল দু’জনকেই লাল কার্ড দেখান। এ দিন নিজের ফুটবল জীবনে দ্বিতীয় লাল কার্ড দেখলেন লিও।

তাতে অবশ্য জয় আটকায়নি আর্জেন্টিনার। দ্বিতীয়ার্ধে ৫৯ মিনিটের মাথায় পেনাল্টি থেকে গোল করে ব্যবধান কমান ভিদাল। বাকি সময়ে আর কোনও গোল হয়নি। ২-১ গোলে ম্যাচ জেতে আর্জেন্টিনা।

কিন্তু ম্যাচ শেষে নিজের ক্ষোভ উগরে দেন মেসি। মিক্সড জোনে এসে তিনি বলেন, “কোপাতে জঘন্য রেফারিং হচ্ছে। দু’জনকেই হলুদ কার্ড দেওয়া যেত। রেফারিরা ভার-এর ব্যবহার করছেন না। আগের দিনও করেননি। ব্রাজিলকে সুবিধে করে দিতেই এসব করা হচ্ছে।” ম্যাচের পর মেডেল নিতেও যাননি মেসি। এমনকী দলের সঙ্গে ছবি তুলতেও যোগ দেননি তিনি।

ফুটবল বিশেষজ্ঞরাও অবশ্য এই লাল কার্ড নিয়ে মেসির সঙ্গে একমত। তাঁদের বক্তব্য, মেসি যা করেছেন, তা কখনওই রেড কার্ড অফেন্স নয়। অবশ্য মেডেলকে লাল কার্ড দেখিয়ে ঠিকই করেছেন রেফারি।

Comments are closed.